বিধায়কের রহস্য মৃত্যুতে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন স্মৃতি ইরানির

413
ফাইল ছবি।

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদের বিধায়কের রহস্য মৃত্যুতে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।

উল্লেখ্য, সোমবার সকালে রায়গঞ্জ থানার বিন্দোল গ্রাম পঞ্চায়েতের বালিয়াদিঘী গ্রামে একটি বন্ধ দোকানের বারান্দার সিলিং থেকে উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। বিষয়টি নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। বিধায়কের আত্মীয়ের অভিযোগ, রাত ১টা নাগাদ দুষ্কৃতীরা তাঁকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তাঁকে খুন করে দেহ ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। সকালে তাঁরা বিষয়টি জানতে পারেন।

- Advertisement -

বিধায়কের রহস্য মৃত্যুতে পশ্চিমবঙ্গের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়কের রহস্য মৃত্যুতে তিনি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি মৃতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

এদিন টুইটে স্মৃতি ইরানি লিখেছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়কে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনায় আমি গভীরভাবে শোকাহত। রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি উদ্বেগের একটি বড় কারণ। দেবেন্দ্রবাবুর পরিবার ও তাঁর সমর্থকদের প্রতি আমি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।‘

https://twitter.com/smritiirani/status/1282639803616387072

এদিকে, রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের অভিযোগ, উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের অস্বাভাবিক মৃত্যু আত্মহত্যা বলে ধাপাচাপা দিতে চাইছে পুলিশ। সোমবার টুইটে রাজ্যপাল লিখেছেন, ‘পুলিশ বিধায়কের মৃত্যু আত্মহত্যা বলে ধামাচাপা দিতে চাইছে। বিশেষজ্ঞদের তত্ত্বাবধানে মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করাতে হবে। পাশাপাশি ময়নাতদন্তের ভিডিওগ্রাফিও করতে হবে।’ ঘটনার তদন্তে তিনি স্বচ্ছতার দাবি জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, বিজেপি বিধায়কের অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী। তাঁর মতে, বিধায়কের মৃত্যুর পেছনে রহস্য রয়েছে। রাজ্য সরকার নিরপেক্ষ তদন্ত করুক।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ঘটনাস্থলে পুলিশ কুকুর, ফরেনসিক এক্সপার্টদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ময়নাতদন্ত এখনও বাকি আছে। ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ যাবে। পুলিশের তরফে সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলা হয়েছে, ‘ঘটনার তদন্ত সম্পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন, তার আগে কোনওরকম গুজবে কান দেবেন না।‘