বিষধর সাপের ছোবলে গুরতর জখম ব্যক্তি

432

কুমারগ্রাম, ৩০ এপ্রিলঃ বিষধর সাপের ছোবলে গুরতর জখম হলেন এক পঞ্চাশোর্ধ ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার রাতে কুমারগ্রামের হাইস্কুল পড়ায় ঘটনাটি ঘটে। জানা গিয়েছে, পেশায় দিনমজুর পলকু দাস অন্যান্য দিনের মতো এদিন রাতেও পলকু দাস আলোতে গৃহপালিত গোরুর খাবারের জন্য পোয়ালের পুজি থেকে পোয়াল (খড়) টেনে বের করছিলেন। ওই সময় আচমকাই বিষধর গোখরো সাপ তাঁর বাম হাতে ছোবল দেয়। হাতের শিরা ফুঁটো হয়ে ফিনকি দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে। তাঁর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুঁটে এসে, দ্রুত কুমারগ্রাম প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক তাঁকে ১০ ভায়েল অ্যান্টিভেনাম দিয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে অ্যাম্বুলেন্সে চাপিয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়। দিনমজুরের মেয়ে এবং স্ত্রী উভয়েই ঘটনার জেরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। লকডাউনের মাঝেই সামাজিক দূরত্ব ভুলে, আতঙ্কিত প্রচুর মানুষ সাপে কাঁটা রোগী দেখতে হাসপাতাল চত্বরে ভিড় জমান। এব্যাপারে কুমারগ্রাম প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডাঃ তাপস সরকার জানান, হাতের ক্ষতস্থান দেখে বিষধর সাপের ছোবল বলেই মনে করা হচ্ছে। রোগীর শরীরে ১০ ভায়েল অ্যান্টিভেনাম দেওয়া হয়েছে। তবে, উন্নত চিকিৎসার জন্য রোগীকে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।