তাহলে কী শ্যালকের হাতেই খুন জামাইবাবুর? তদন্তে পুলিশ  

152

ওদলাবাড়ি: রবিবার সকালে ওদলাবাড়ির ঘিস নদী থেকে এক ব্যাক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করল মাল থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত ব্যাক্তির নাম রাজকুমার ওরাও(৩৭)। ওদলাবাড়ি চা বাগানের বাবুজোত এলাকার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। মৃত ব্যক্তির স্ত্রী’র অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ রাজকুমার ওরাও’র বড় শ্যালককে গ্রেপ্তার করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে বাবুজোত সংলগ্ন ঘিস নদী এলাকায় এক ব্যাক্তির মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে চাঞ্চল্য ছড়ায়। গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য ধরমু এক্কা বিষয়টি মাল থানায় জানালে আই সি সুজিত লামার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে পাঠায়। মৃতের গলায় গেঞ্জি দিয়ে ফাঁস লাগানো ছিলো বলে জানা গেছে। মৃতের স্ত্রী বিপ্তি ওড়াও পুলিশ কে জানিয়েছে যে প্রতিদিনের মতো গতকালও তার স্বামী রাজকুমার ওরাও  মদ্যপান করে তাকে এবং তার ছেলে মেয়েকে মারধর করতে শুরু করে৷ রাতে বিপ্তি ওড়াও এর দাদা অনিল ওরাও  এসে  বোঝানোর চেষ্টা করে রাজকুমার ওরাও কে। কিন্তু কোন ভাবেই বুঝতে চাইছিলো না সে। এরপর বিপ্তির দাদা, শ্বাসরোধ করে ঘিস নদীর জলে ফেলে দেয় রাজকুমার ওরাওকে।পুলিশ অনিল ওরাও কে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে। মালবাজার থানার আই সি সুজিত লামা জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত চলছে। একজন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

- Advertisement -