মোথাবাড়িতে গঙ্গার চর থেকে মাটি পাচার হচ্ছে

263

মোথাবাড়ি : গঙ্গার পাড় থেকে মাটি কাটার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে মোথাবাড়ি থানার পুলিশ। ধৃতের নাম হানিফ শেখ। কালিয়াচকের কাঁঠালবোনা গ্রামে তার বাড়ি। দীর্ঘদিন ধরেই সে মাটি কাটার কাজ করত বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার হামিদপুরের চর এলাকায় গঙ্গার পাড়ে নদীর ধার থেকে বেআইনিভাবে মাটি কাটার অপরাধে দুটি ট্র‌াক্টর, একটি ট্রাক সহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গঙ্গার পাড় এলাকা থেকে দীর্ঘদিন ধরে মাটি কাটার অভিযোগ উঠেছে কিছু মাফিয়ার বিরুদ্ধে। পুলিশ প্রশাসন এবং ভূমি ও ভূমিসংস্কার দপ্তরের প্রচ্ছন্ন মদতে এই কাজ হয় বলেও সাধারণ মানুষের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ দাবি করেন, যেভাবে নিয়ম না মেনে গঙ্গার পাড় থেকে মাটি কাটা হচ্ছে তাতে নদী ভাঙনের আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চাপানউতোর থাকলেও পুলিশ প্রশাসন কোনো উদ্যোগ নেয়নি বলে অভিযোগ। তবে প্রবল জনমতের চাপে শেষ পর্যন্ত পুলিশ নড়েচড়ে বসে। গত ডিসেম্বরে হামিদপুর এলাকা থেকে দুটি ট্রাক সহ দুইজন ট্রাকচালককে পুলিশ গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার ফের একজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এদিন সকাল থেকেই বেশ কয়েকটি গাড়ি গঙ্গার পাড় থেকে মাটি কাটছিল। খবর যায় ওসি বিপুল পালের কাছে। এরপরই ওসির নির্দেশে মোথাবাড়ি থানার এএসআই চিরঞ্জীব সাহেবের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী এলাকায় পৌঁছায়। একাধিক ট্র‌াক্টর এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটি ট্র‌াক্টর, ট্রাক আটক করে। সেইসঙ্গে গ্রেফতার করে একটি গাড়ির চালককে। এই ঘটনায় মোথাবাড়ি থানার পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, গঙ্গাপাড়ের মাটি কাটা বেআইনি। এর ফলে সাধারণ মানুষ বিপদে পড়বেন। গঙ্গার ভাঙন বেড়ে যাবে। মোথাবাড়ি থানার ওসি বিপুল পাল জানান, পুলিশ কখনও বেআইনি কাজকে মদত দেয় না। প্রতিটি অভিযোগ খাতিয়ে দেখা হয়। এর আগেও একাধিকবার বেআইনি মাটি কাটার সঙ্গে যুক্ত অপরাধীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এই অপরাধের সঙ্গে যুক্ত কোনো অপরাধীকে রেয়াত করা হবে না।

- Advertisement -