নকশালবাড়িতে দশ মাস বন্ধ সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্প

49

মহম্মদ হাসিম, নকশালবাড়ি : বন্ধ সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট ব্যবস্থাকে কেন্দ্র করে নরকয়ন্ত্রণায় ভুগছেন নকশালবাড়ির বাসিন্দারা। প্রায় আড়াই বছর আগে নকশালবাড়ি ব্লকের নকশালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের হুদুভিটায় ২৬টি সংসদকে নিয়ে প্রায় এক কোটি টাকায় এলাকায় সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্প তৈরি হয়েছিল। প্রকল্পটি নকশালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে নির্মিত হয়েছিল। কিন্তু গত প্রায় দশ মাস ধরে সেটি তালাবন্ধ অবস্থায় পড়ে আছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, বর্জ্য নিষ্কাশন যন্ত্র বসানো হয়নি, তাই প্রকল্পটি চালু করা যায়নি। ফলে নকশালবাড়ি বাজার এলাকায় আবর্জনার পাহাড় জমে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।

নকশালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের সার্কেল ইনচার্জ ওয়াংদি লামা নির্বাচনি বিধিনিষেধের কারণে এ ব্যাপারে কিছু বলতে চাননি। প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত এক কর্মী সাকির হুসেন বলেন, ভোটের জন্য প্রকল্পটি বন্ধ রাখা হয়েছে। অন্যদিকে, নকশালবাড়ি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নিখিল ঘোষ বিষয়টি নিয়ে চুপ রয়েছেন।

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে নকশালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের হুদুভিটা অঞ্চলে প্রথম পর্যায়ে গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাতিষ্ঠানিক সশক্তিকরণ কর্মসূচি প্রকল্প, মিশন নির্মল বাংলা প্রকল্প থেকে ৭০ লক্ষ টাকা সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল। এই প্রকল্পে বড় ভবন তৈরি করা হলেও ভেতরে কোনও যন্ত্রপাতি বসানো হয়নি।

২০১৯ সালের অক্টোবরে পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব প্রকল্পটি উদ্বোধন করেছিলেন। জানা গিয়েছে, প্রকল্পটির মাধ্যমে উত্কৃষ্টমানের জৈব সার তৈরি করে চা বাগানগুলির কাছে বিক্রি করে পঞ্চায়েতের আয় বৃদ্ধি করার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও লোকবলের অভাবে কার্যত থমকে যায় পুরো প্রকল্পটি। এলাকাগুলি থেকে আবর্জনা সংগ্রহ করার জন্য পাঁচটি টোটো, চারটি ই-রিকশাও কেনা হয়েছিল। কিন্তু তার মধ্যে অধিকাংশই খারাপ হয়ে পড়ে রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে তালাবন্ধ অবস্থায় থাকায় জঙ্গলে ঢেকেছে প্রকল্পটি। আগে নকশালবাড়িতে ডাম্পিং গ্রাউন্ড তৈরির দাবিতে ভোট প্রচার হত। এখন প্রকল্পের উদ্বোধনের পর সেটি বন্ধ হয়ে পড়ায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। প্রথমদিকে ৪০ জন কর্মী এখানে কাজ করতেন। তাঁরা এখন কর্মহীন।

নকশালবাড়ি ডিআই ফান্ড মার্কেট, মাছ বাজার, ঘাটানি মোড়, বাসস্ট্যান্ড, হাটশেড, নন্দপ্রসাদ বয়েজ হাইস্কুলের সামনে, এশিয়ান হাইওয়ের রাস্তার ধারে আবর্জনার পাহাড় জমে উঠেছে। ফলে গোটা এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। নকশালবাড়ি ডিআই ফান্ড মার্কেটের এক ব্যবসায়ী বীরেন সরকার বলেন, আমি বাজারে পসরা সাজিয়ে বসি। কিন্তু দুর্গন্ধের কারণে টেকাই দায়। খরিদ্দাররাও আসতে চান না। ফলে ব্যবসা মার খায়।