শ্যালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা, বাধা দিতে গেলে খুনের অভিযোগ জামাইবাবুর বিরুদ্ধে

282

মুর্শিদাবাদ: মদ্যপ অবস্থায় শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে শ্যালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল জামাইবাবুর বিরুদ্ধে। ধর্ষণে বাধা দিতে গেলে ওই মহিলাকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। বুধবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটে মুর্শিদাবাদ জেলার সামশেরগঞ্জ থানা এলাকায়। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল গভীর রাতে বছর ৩০-এর ওই মহিলা যখন ঘুমিয়েছিলেন, সেইসময় জামাইবাবু তাঁর ঘরে ঢোকেন। মদ্যপ অবস্থায় জোর করে মহিলাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সে। অভিযোগ, ওই মহিলা বাধা দিতে গেলে মদ্যপ অবস্থায় অভিযুক্ত ব্যক্তি প্রথমে তাঁকে শ্বাসরোধ করে, পরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাঁকে খুন করে। এরপর সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে।

- Advertisement -

মৃতার প্রতিবেশী জানান, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি প্রথম স্ত্রীকে খুন করার পর তাঁদের গ্রামে দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছিলেন। রোজ মদ্যপ অবস্থায় দ্বিতীয় স্ত্রীর ওপরও সে অকথ্য অত্যাচার করত। স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে সম্প্রতি তার স্ত্রী নিজের গ্রামে ফিরে এসেছিলেন। গতকাল রাতে যখন বাড়ির সকলে ঘুমিয়ে পড়েন তখন ওই ব্যক্তি মদ্যপ অবস্থায় বাড়িতে ঢুকে তার শ্যালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। মহিলা বাধা দিতে গেলে তাকে খুন করে পালিয়ে যায়। ঘটনার সময় ব্যক্তির স্ত্রী ওই বাড়িতে ছিলেন না। অভিযুক্তের স্ত্রী জানান, বোনকে আমার স্বামী খুন করেছে। তার কঠোর শাস্তি দাবি করছি। মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। সামশেরগঞ্জ থানার পুলিশ অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছেন জঙ্গিপুর পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার ওয়াই রঘুবংশী। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।