ক্ষমতায় এলে সবুজসাথীর সাইকেল নয়, স্কুটি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি সৌমিত্র খাঁয়ের

328

বর্ধমান: দোরগোড়ায় পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন।তার আগে কল্পতরু বিজেপি। রাজ্যের স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীদের মুখ্যমন্ত্রী ‘সবুজসাথীর’ যে সাইকেল দিয়েছে তা বিজেপির না পসন্দ।বুধবার পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে এসে রাজ্য বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি তথা সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বলেন, ‘এবারের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় আসলে সাইকেল নয়, ছাত্রীদের স্কুটি দেওয়া হবে।’  সৌমিত্র খাঁ প্রতিশ্রুতির কথা ঘোষনা করতেই করতালিতে ভরে যায় সভাস্থল।সৌমিত্র খাঁর এই প্রতিশ্রতি কে যদিও ‘ভোটের লালিপপ’ বলে জানিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

এদিন খণ্ডঘোষের বেড়ুগ্রামে অনুষ্ঠিত হয় বিজেপির জনসভা। সেই সভায় বক্তব্য রাখতে উঠে স্কুটি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেবার পাশাপাশি সৌমিত্র খাঁ বীরভূম জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকেও এক হাত নেন। অনুব্রত মণ্ডলের ‘ঠেঙ্গিয়ে পগার পার’ করে দেওয়া হুমকির প্রসঙ্গ সামনে এনে সৌমিত্র খাঁ জানান, ‘বিজেপিকে ‘ঠেঙ্গিয়ে পগার পার’ করার আগে উনিই চলে যাবেন রাজনীতি থেকে। আর রাজনীতি করতে পারবেন না।এলাকার মানুষই ওকে আর রাজনীতি করতে দেবে না।’ সভামঞ্চ থেকে সৌমিত্র খাঁ আরো প্রতিশ্রুতি দেন, ভোটে জিতলে বিজেপি প্রত্যেকটা বাড়িতে চাকরির সংস্থান করবে। সায়নী ঘোষকেও এদিন  একহাত নেন সৌমিত্র খাঁ। তিনি বলেন, ‘দেবী সরস্বতীকে যৌনকর্মী বলেছেন সায়নী ঘোষ। আমরা মনে করি আমাদের শিবলিঙ্গকে যারা অপমান করে, যারা মা মনসাকে অপমান করে তারাই অরিজিনাল যৌনকর্মী। ‘জোড়াফুল’ প্রতীক নিয়েও তৃণমূলকে বেঁধেন সৌমিত্রবাবু।  তিনি বলেন, ‘জোড়া ফুলের একটি ফুল হল অভিষেক আর অন্য ফুলটি হল ফিরহাদ হাকিম।’ যদিও সৌমিত্র খাঁর  স্কুটি দেওয়া প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবু টুডু বলেন,“মানুষ বিজেপিকে যে ভোট  দেবেনা তা সৌমিত্র খাঁ সহ সব বিজেপি নেতাই বুঝে গিয়েছেন। তাই এখন তারা মিথ্যা প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে দিতে শুরু করেছেন। খণ্ডঘোষ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অপার্থিব ইসলাম বলেন, ‘বউ হারিয়ে সৌমিত্র খাঁয়ের মাথা খারাপ হয়েগেছে।তাই যা খুশি বলে চমক দেওয়ার চেষ্টা করছে।তবে এইসবে কিছু কাজ হবেনা। লোকসভা ভোটে খণ্ডঘোষের মানুষ  সৌমিত্র খাঁকে হারিয়েছে। এবারের বিধানসভা নির্বাচনেও খণ্ডঘোষের মানুষ বিজেপিকে যোগ্য জবাব দিয়ে দেবে।’ এদিন বিডিআর রেলের বোয়াইচণ্ডী স্টেশনে ফুট ওভারব্রিজের উদ্বোধন হয়।সেই অনুষ্ঠানে এলাকার সাংসদ সৌমিত্র খাঁ ছাড়াও সাউথ ইস্টার্ন রেলওয়ের আদ্রা ডিভিশনের ডিআরএম নবীন কুমার উপস্থিত ছিলেন। ফিতে কেটে ফুট ওভারব্রিজের উদ্বোধন করেন বিষ্ণুপুর লোকসভার সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। অনুষ্ঠানে রেলে আদ্রা ডিভিশনের সিনিয়র কো-অর্ডিনেটর অমিত কুমার, ডিএসসি মিগম দোলে, ডিসিএম অভিনব সিদ্ধার্থ সহ অন্যান্য আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন।

- Advertisement -