পৃথিবীর বাইরে ভিন্নগ্রহের ভিন্ন বাসিন্দা, যা এখন পর্যন্ত সিনেমায় কিংবা গল্পেই শোনা যায। যদিও বিজ্ঞানীদের মধ্যে এ নিযে ভিন্নমত রয়েছে, তবে এ নিয়ে এখনো গবেষণা চালিযে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। আর সেই ধারাবাহিকতায এবার লেজার রশ্মির মাধ্যমে খোঁজা হবে এলিযে। হ্যাঁ, লেজার রশ্মি পাঠিযে এবার ভিনগ্রহে বার্তা পাঠাবে মানুষ। সেই লেজার রশ্মি দেখে ২০ হাজার আলোকবর্ষ দূরে থাকা ভিনগ্রহী সভ্যতা আমাদের ঠিকানা জানতে পারবে।
শুনতে আশ্চর্য মনে হলেও হাজার হাজার আলোকবর্ষ পার করতে পারে এমন লেজার রশ্মি নিযে কাজ করছেন ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির (এমআইটি) একদল বিজ্ঞানী। তাঁদের আবিষ্কৃত এই লেজার রশ্মি পৃথিবীর বাইরে বিভিন্ন গ্রহে প্রাণের সন্ধান করবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা।
এই লেজার রশ্মির জন্য ১ থেকে ২ মেগাওযাট আলো এবং প্রচুর পরিমাণ শক্তির প্রযোজন হবে। এমআইটির গবেষক জেমস ক্লার্ক বলেন, আমরা বিভিন্ন ক্ষমতার লেজার রশ্মি ও টেলিস্কোপের বিভিন্ন ব্যাসের লেন্স নিযে দীর্ঘদিন ধরে পরীক্ষা চালিয়েছে। এ ধরনের লেজার রশ্মি থেকে নির্ধারণযোগ্য সিগনাল তৈরি করা সম্ভব। তাঁদের মতে, এই টেলিস্কোপটির জন্য ৩০ ও ৪৫ ব্যাসের লেন্স প্রয়োজন হবে। এজন্য ইতিমধ্যে তিনটি ভিন্ন ধরনের এবং ভিন্ন মাত্রার টেলিস্কোপ নিযে কাজ চলছে, যা ২০২০ সালের মাঝামাঝি হাওযাইযান আইসল্যান্ডের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউনা কেযায বসানো হবে।