পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে স্পেশাল ট্রেন ফিরল মুর্শিদাবাদে

316

মিঠুন হালদার, বহরমপুর: কেরলের এরনাকুলাম থেকে মুর্শিদাবাদের বহরমপুর কোর্ট স্টেশনে ফিরল ১১২৪ জন পরিযায়ী শ্রমিক। বুধবার রাতে ট্রেনটি নির্ধারিত সময় থেকে প্রায় ছয় ঘন্টা দেরি করে অবশেষে বহরমপুর কোর্ট স্টেশনে ফেরে।

এই বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার সবরি রাজকুমার জানিয়েছেন, ‘একটি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে পরিযায়ী শ্রমিকরা আমাদের জেলায় ফিরেছে। তাঁদের মধ্যে অনেকে মুর্শিদাবাদের বিভিন্ন গ্রামের এবং নদীয়া সহ বিভিন্ন এলাকার। তাদের বাড়ি ফেরার জন্য সরকারি তরফে ৬৫টি বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

- Advertisement -

আরও পড়ুন: জামালদহে অসুস্থ রেলকর্মীকে ঘিরে চাঞ্চল্য

ভিন রাজ্য থেকে ফিরে আসা মুর্শিদাবাদের জলঙ্গীর ধনীরামপুর গ্রামের এক শ্রমিক হাবিবুর শেখ বলেন, ‘আমি গত সাত মাস আগে কেরলের তিরুবন্তপুরমে গিয়েছিলাম। সেখানে আমরা রাস্তা তৈরির কাজ করতাম। আমাদের সাংসদ অধীর চৌধুরীর চেষ্টায় আমরা বাড়ি ফিরতে পেরেছি। তাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। কেরল সরকারের তরফে আমাদের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু টিকিট কোনওভাবেই আমাদের বিনামুল্যে দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার।’

এই বিষয়ে কেরল থেকে ফিরে আসা এক শ্রমিক সাইদ আলি বলেন, ‘সরকারের উদ্যোগে বাড়িতে ফিরে আসতে পেরে খুব ভালো লাগছে। সেখানে আমরা দু’বেলা খেতে পারছিলাম না। বাড়ি ফিরে আসার জন্য সরকারের দেওয়া ট্রেনে আসতে আমাদের ৯৫০ টাকার টিকিট কিনতে হয়েছে। সরকার আমাদের যদি একটু ছাড় দিত তাহলে উপকার হত।’

পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে স্পেশাল ট্রেন ফিরল মুর্শিদাবাদে| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

এই বিষযে মুর্শিদাবাদ জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রশান্ত বিশ্বাস জানিয়েছেন, ‘কেরল থেকে একটি ট্রেন শ্রমিকদের নিয়ে সন্ধ্যা নাগাদ মুর্শিদাবাদ আসে। স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে প্রত্যেকটি শ্রমিকের প্রাথমিক পর্যায়ে স্ক্রিনিং করা হয়েছে। আগামী ১৪ দিনের জন্য সমস্ত শ্রমিককে কোয়ারান্টিনে থাকতে হবে। সেই সঙ্গে সমস্ত শ্রমিককে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দেওয়া হয়েছে।’

আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যে থানা থেকে হাপিস প্রায় ১০০০ বোতল মদ

এই বিষযে বহরমপুরের কংগ্রেস সাংসদ তথা লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী জানিয়েছেন, ‘ভিন রাজ্যে আটকে থাকা শ্রমিকদের ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য আমি ফোনে রেলমন্ত্রী পীযূশ গোয়েলের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার বিষয়ে আমাদের রাজ্যেকে ট্রেন দিতে রাজি রয়েছেন। কিন্তু রাজ্য সরকার এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে কোনও কথা বলেনি।’