দুই তৃণমূল নেতৃত্বের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জল্পনা

158

হলদিবাড়ি: মহিলা তৃণমূলের ব্লক কমিটির সভানেত্রী ও হলদিবাড়ি টাউন কমিটির সভাপতির ফেসবুক পোস্ট নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে মেখলিগঞ্জ বিধানসভা এলাকায়। বুধবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় দুজনের ভিন্ন দুটি পোস্ট ঘিরে উত্তাল হয়েছে মেখলিগঞ্জ মহকুমার রাজনীতি। পোস্ট দুটির অর্ন্তনীহীত অর্থে মেখলিগঞ্জের বিদায়ী বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধানের বিজেপিতে যোগদানের পাশাপাশি প্রার্থী হওয়ার সম্ভবনার জল্পনা শুরু হয়। যদিও তৃণমূলের হলদিবাড়ি ব্লক কমিটির সভাপতি অমিতাভ বিশ্বাস বিষয়টি গুঞ্জন ছাড়া কিছুই নয় বলে জানান।

এদিন সন্ধ্যায় প্রথমে যুব তৃণমূলের হলদিবাড়ি টাউন কমিটির সভাপতি প্রদীপ সিনহা নিজস্ব ফেসবুক একাউন্টে পোস্ট করে লিখেন, ‘আর মাত্র কিছুক্ষণ, এই মাটিতেই খেলা হবে।’ ঠিক তার কিছু পরে মহিলা তৃণমূলের ব্লক কমিটির সভানেত্রী তথা বিধায়ক পত্নী পূরবী রায় প্রধানও নিজস্ব ফেসবুক একাউন্টে পোস্ট করে লিখেন, ‘শেষ নাহি যার শেষ কথা কে বলবে।’ মেখলিগঞ্জের বিদায়ী বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধানের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত প্রদীপ সিনহা ও বিধায়ক পত্নীর পোস্টকে গুরুত্ব দিয়ে শুরু হয় বিভিন্ন জল্পনা।

- Advertisement -

ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে অজানা আশঙ্কা দেখা দেয়। বিজেপি থেকে বিদায়ী বিধায়কে প্রার্থী করা হলে লড়াইটা কতোটা কঠিন হতে পারে ধরে নিয়েই দলীয় নেতৃত্বের মধ্যে আশঙ্কা তৈরি হয়। বহু তৃণমূল নেতা একে অপরকে ফোন করে পোস্টের পিছনে লুকিয়ে থাকা রহস্য উন্মোচনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে সূত্রের খবর। দুই ব্লক থেকে প্রচুর কর্মী সমর্থক বিধায়কের বাসভবনে গিয়ে ভিড় জমান। যদিও শহর যুব তৃণমূলের সভাপতি প্রদীপ সিনহা বিষয়টি মজা করে লিখেছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে দাবি করেন। অন্যদিকে পূরবী রায় প্রধান সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট বিষয়ে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি। বিদায়ী বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধানের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।