ভোটে শ্রীলেখার বাজি সিপিএমের ইয়ং ব্রিগেড

83
ছবিঃ সংগৃহীত।

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: বঙ্গে ভোটের দামামা ইতিমধ্যেই বেজে গিয়েছে। ২৭ মার্চ থেকে প্রথম দফার ভোট শুরু। ৩০টি আসনে ভোট গ্রহণ হবে। সেই হিসেবে মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন বাকি। এখন শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সমস্ত দল। ক্ষমতা দখলের লক্ষ্যে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে জনসভা, মিটিং-মিছিল করছেন তৃণমূল, বিজেপি, বাম-কং জোট। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভাঙা পা নিয়ে হুইল চেয়ারে বসেই প্রচারের কাজে রাজ্যের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্ত চষে বেড়াচ্ছেন। সমানভাবে সক্রিয় গেরুয়া শিবিরের নেতারাও। খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রায়ই রাজ্যে আসছেন। বিজেপি-তৃণমূল নেতাদের তোপ-পালটা তোপে সরগরম রাজ্য রাজনীতি।

জোড়াফুল বা পদ্ম-দুই শিবিরই হেভিওয়েট বা তারকা প্রার্থীতে ভরসা রাখলেও সিপিএম কিন্তু এবার ইয়ং ব্রিগেডের ওপরই ভরসা রেখেছে। বাম-কংগ্রেস জোট কসবায় শতরূপ ঘোষকে প্রার্থী করেছে। এছাড়া জামুরিয়ায় প্রার্থী হয়েছেন জেএনইউ-এর ছাত্র নেত্রী ঐশি ঘোষ, সিঙ্গুরে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী হয়েছেন সৃজন ভট্টাচার্য, নন্দীগ্রামের মতো শক্ত আসনে জোটের প্রার্থী মিনাক্ষী মুখোপাধ্যায়, বালিতে প্রার্থী হয়েছেন দিপ্সিতা ধর। আর বর্ধমান দক্ষিণে প্রার্থী পৃথা তা। সিপিএম তথা সংযুক্ত মোর্চার তরুণ তুর্কিরা ভোটের ময়দানে পোড় খাওয়া রাজনীতিকদের কতটা লড়াই দেবেন, তা সময় বলবে। তবে ইয়ং ব্রিগেড নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী সিপিএম তথা সংযুক্ত মোর্চা। মহম্মদ সেলিম, সুজন চক্রবর্তী, সূর্যকান্ত মিশ্রের মতো বর্ষীয়ান বাম নেতারাও তাঁদের বক্তব্যে ইয়ং ব্রিগেডের প্রতি আস্থা প্রকাশ করেছেন। এবার সিপিএমের তরুণ তুর্কিদের ওপর আস্থা প্রকাশ করলেন বাম মনোভাবাপন্ন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

- Advertisement -

শনিবার ফেসবুকে একটি কোলাজ পোস্ট করেন শ্রীলেখা। সেই কোলাজে ১৫ জন প্রার্থীর মুখ রয়েছে। কোলাজের প্রথম রো’তে রয়েছে সিপিএমের পাঁচ তরুণ প্রার্থীর ছবি। সেই পাঁচজন হলেন শতরূপ, মিনাক্ষী, ঐশি, দিপ্সিতা ও সৃজন। দ্বিতীয় রো’তে রয়েছে তৃণমূলের রাজ চক্রবর্তী, সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিক, লাভলি মৈত্র ও সায়নী ঘোষের ছবি। আর তৃতীয় রো’তে রয়েছে বিজেপির পাপিয়া অধিকারী, অগ্নিমিত্রা পাল, পায়েল সরকার, যশ দাশগুপ্ত ও শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়।

ছবিটি পোস্ট করে শ্রীলেখা ফেসবুকে লিখেছেন, ‘মুখগুলি দেখে একটি তুলনামূলক আলোচনা করে আপনি এবারের ভোট কাকে দেবেন, তা বিচার করুন।’ কোলাজের দ্বিতীয় ও তৃতীয় রো’তে যাঁরা রয়েছেন তাঁদের সকলেই অভিনেতা অভিনেত্রী বা চিত্র পরিচালক। অন্যদিকে, সংযুক্ত মোর্চার সিপিএম প্রার্থীরা সকলেই সিপিএমের ছাত্র-যুব আন্দোলন থেকে উঠে আসা নেতা-নেত্রী। ফেসবুক পোস্টে সেই পার্থক্যই তুলে ধরেছেন শ্রীলেখা। সংযুক্ত মোর্চার ব্রিগেড সমাবেশে শ্রীলেখাকে দেখা গিয়েছিল। বালির প্রার্থী দিপ্সিতা ধরের প্রচারেও তাঁকে দেখা গিয়েছে। বাম মনোভাবাপন্ন এই অভিনেত্রীও যে এবার সিপিএমের ইয়ং ব্রিগেড নিয়ে আশাবাদী, তা তাঁর পোস্টেই প্রমাণিত।