মোদি–শায়ের ৭০টি সভার পরিকল্পনা, প্রস্তাব বঙ্গ বিজেপির

99

উত্তরবঙ্গ সংবাদ নিউজ ডেস্ক: আগামী ৭ মার্চ প্রধানমন্ত্রীর ব্রিগেড সমাবেশ। আর তারপরই রাজ্যে আরও ঠাসা সভা করবেন নরেন্দ্র মোদি। এমনকী আরও ২০টি জনসভা করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে গেরুয়া শিবির সূত্রে খবর। ২৫–৩০টি জনসভা করাতে চাইছে রাজ্য বিজেপি। আর সেই সভাগুলি নজরকাড়া কেন্দ্রে করাতে চাইছে বঙ্গ বিজেপি বলে সূত্রের খবর। ৫০টি জনসভা করবেন অমিত শা।

ইতিমধ্যেই ২ মার্চের সভা বাতিল হয়েছে বঙ্গে। তাই বিকল্প সভা করার কথা ভাবছে রাজ্য বিজেপির নেতৃত্বরা। একইসঙ্গে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দিয়ে আরও বেশি করে সভা করাতে পারলে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় ভিত মজবুত করা যাবে। যদিও এখন এই প্রস্তাবে চূড়ান্ত সিলমোহর পড়েনি।

- Advertisement -

মার্চ মাসের প্রথম রবিবার কলকাতায় নরেন্দ্র মোদির ব্রিগেড সমাবেশ। আর তা খতিয়ে দেখতে মাঠে নেমে পড়েছে বিজেপি নেতারা। ইতিমধ্যেই মঞ্চ কোথায় হবে, পরিকাঠামো কেমন থাকবে, নেতারা কোথায় বসবেন, সংবাদমাধ্যমের জায়গা কোথায় হবে তা তদারকি করছেন বঙ্গ–বিজেপি নেতারা। এমনকী মাঠ ভরাতে তৎপর গেরুয়া শিবির। এই ব্রিগেড সমাবেশে ২০ লক্ষ জমায়েতের লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে বিজেপি। বিষয়টি নিয়ে নব্য বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘‌৭ তারিখের ব্রিগেড ভরাতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর ব্রিগেডে ২০ লক্ষ মানুষের জমায়েত করতে হবে।’‌

প্রসঙ্গত, বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। একুশের ভোটযুদ্ধে সিংহাসনের লড়াইয়ে মরিয়া দুই প্রধান প্রতিপক্ষ তৃণমূল ও বিজেপি। একদিকে সিংহাসন ধরে রাখতে মরিয়া ঘাসফুল শিবির। অন্যদিকে, পরিবর্তন এনে ‘সোনার বাংলা’ গড়ার ডাক দিয়েছেন মোদি-শা’রা। এই আবহে বাংলাজুড়ে মোদির সভা তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।