নিমতিতার দায় এড়াতে পারে না রাজ্য, দাবি রেলের

115

নয়াদিল্লি: মুর্শিদাবাদের নিমতিতায় রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনের ওপর বোমাবাজির ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোর। শুরু হয়েছে অভিযোগ, পালটা অভিযোগের পালা। এই ঘটনায় রেলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখে কুলুপ এঁটে বসে নেই রেল মন্ত্রকও। নিমতিতা স্টেশনে হওয়া বিস্ফোরণের ঘটনা আসলে রাজ্যের শাসক দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও গোষ্ঠীদ্বন্দের দৃষ্টান্ত বলে জানিয়ে রেল এই ব্যাপারে তাদের অবস্থান পরিষ্কার করে দিল। ঘটনার তদন্ত নিয়ে ওয়াকিবহাল রেল মন্ত্রকের আধিকারিকরা বৃহস্পতিবার স্পষ্ট দাবি করেছেন, তৃণমূলের নিজস্ব গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই ঘটেছে এই হামলা।

এদিন বোমাবাজির ঘটনায় জঙ্গি বা নাশকতা যোগের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিয়েছে রেল মন্ত্রক। রেলের এক শীর্ষ আধিকারিকের যুক্তি, জঙ্গিহানা নয়, এই ঘটনার নেপথ্যে সিপিআই ও তৃণমূলের রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের প্রভাবও থাকতে পারে। সম্প্রতি বাম ছাত্র যুবদের নবান্ন অভিযানে পুলিশের লাঠিচার্জে বাম কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্দার মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এ প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রকের আধিকারিকরা বলেন, ডিওয়াইএফআই কর্মীর অকাল মৃত্যুতে এলাকায় উত্তেজনা বাড়ছিল। এর প্রতিহিংসারও ফল হতে পারে বুধবার রাতের ঘটনা। রেল মন্ত্রকের আধিকারিকরা এও জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী এই ঘটনা নিয়ে অহেতুক কেন্দ্রকে দোষারোপ করছেন। ভোলা উচিত নয় যে আইনশৃঙ্খলা রাজ্যের অধীন।

- Advertisement -

অন্যদিকে, নিমতিতার ঘটনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছেন, পরিকল্পিতভাবেই জাকিরের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। তাঁর মতে, এ এক গভীর ষড়যন্ত্র। তিনি এদিন এসএসকেএম-এ গিয়ে আহত জাকির হোসেনকে দেখে আসেন। হাসপাতাল থেকেই বলেন, রিমোট টিপে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। স্টেশনে হাঁটার সময় জেনেশুনেই এই ব্লাস্ট করানো হয়। রেলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মমতা বলেন, এটা রেল স্টেশনে হয়েছে। সে সময় রেলের কোনও পুলিশকর্মী কাছাকাছি ছিলেন না। জায়গাটা অন্ধকার ছিল। আলোও ছিল না।