দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়েতে ‘হল্ট হাব’ তৈরির উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার

566

বর্ধমান: দুর্গাপুর এক্সেপ্রেসওয়ের পালসিট টোল প্লাজার (পূর্ব বর্ধমান) কাছে ‘হল্ট হাব’ তৈরির উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। সোমবার হল্ট হাবের শিলান্যাস করলেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। শিলান্যাস অনুষ্ঠানে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার চেয়ারম্যান দীপ্তাংশু চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন। যাত্রীস্বার্থে ‘হল্ট হাব’-এ সবরকম পরিষেবা মিলবে বলে জানা গিয়েছে।

দীপ্তাংশু চৌধুরী জানিয়েছেন, পিপিপি মডেলে জানুয়ারি মাস থেকে ৮ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হবে অত্যাধুনিক ‘হল্ট হাব’। কলকাতা থেকে দুর্গাপুর যাবার লেনের বাঁদিকে ‘হল্ট হাবটি’ তৈরি হতে চলেছে। হাব তৈরি হয়ে গেলে প্রতিদিন প্রচুর যাত্রী সেখানে নেমে খাওয়া-দাওয়া সারতে পারবেন। পাশাপাশি হাবে থাকবে সুলভ শৌচালয়। হাবে বাঙালি খাবার মাছ-ভাতের পাশাপাশি থাকবে দক্ষিণী খাবার ও পাঞ্জাবি খাবার মিলবে। অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা ও মেডিকেল ব্যবস্থাও থাকবে। কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি যাতে দ্রুত চিকিৎসা পান তার সব রকম ব্যবস্থা ‘হল্ট হবে’ থাকবে। এছাড়াও ২ নম্বর জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনা ঘটলে জখমদের হাসপাতালে পাঠানোর জন্যেও ২৪ ঘণ্টা অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবার ব্যবস্থা হাবে রাখা হবে।

- Advertisement -

মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন, পূর্বে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার সাড়ে চারশো বাস ছিল। এই সরকারের আমলে তা বেড়ে হয়েছে সাড়ে ন’শো। পালসিটে ‘হল্ট হাব’ চালু হলে বহু মানুষের কর্মসংস্থান হবে। অনেকে এই চত্বরে চায়ের দোকান, ফুচকার দোকান বসাবেন। অত্যাধুনিক ‘হল্ট হাবে’ রাতে থাকার জন্য ঘরও থাকবে। হাব তৈরির কাজ দ্রুত শেষ করে তা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।