করোনায় অভিভাবক হারানো সন্তানদের নজরদারিতে অ্যাপ আনল রাজ্য

197

আসানসোল: গোটা রাজ্যে গত ২ বছরে করোনায় ৬৭৭৩ নাবালক তাদের অভিভাবকদের হারিয়েছে। কারোর বাবা কারো বা মায়ের মৃত্যু হয়েছে। এমন অনেকেই আছে, যাদের দুজনই মারা গেছে। এইসব ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে রাজ্য সরকারের বিশেষ অ্যাপ ‘স্নেহছায়া’র উদ্বোধন হল বুধবার। এদিন আসানসোল দুর্গাপুর উন্নয়ন পর্ষদের ‘কথা’ হলে এই অ্যাপের উদ্বোধন করেন রাজ্যের নারী, শিশু উন্নয়ন ও সমাজ কল্যান দপ্তরের মন্ত্রী ডাঃ শশী পাঁজা। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নারী, শিশু উন্নয়ন ও সমাজ কল্যান দপ্তরের অতিরিক্ত সচিব রনধীর কুমার, আসানসোলের অতিরিক্ত জেলা ও সেশন জজ শ্রীময়ী কুন্ডু, জেলাশাসক এস অরুণ প্রসাদ, আসানসোল পুরনিগমের পুর প্রশাসক অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

শশী পাঁজা বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ‘করোনায় অভিভাবকহীন হয়ে পড়া ছেলেমেয়েদের জন্য এই বিশেষ অ্যাপ পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে চারটি জেলা পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া ও পুরুলিয়ায় চালু করা হলো। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে শিশু দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠান করা হবে, তখন বাকি সব জেলায় চালু করা হবে।’ ইতিমধ্যেই ৬৭৭৩ জন নাবালক-নাবালিকার সব তথ্য অ্যাপে তুলে দেওয়া হয়েছে। অ্যাপের মাধ্যমে প্রতিটি জেলার জেলাশাসক ও ডিস্ট্রিক্ট চাইল্ড অফিসাররা তাদের মনিটারিং করবেন। এছাড়াও জেলার চাইল্ড ওয়েলফেয়ারের যে দল আছে, তারা তাদের মাঝেমাঝেই তাদের কাছে যাবে এবং সব তথ্য নেবে ও অ্যাপে আপলোড করবে। এছাড়াও এদিন  রাজ্যের ১৪টি জেলায় ২৮৯টি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র এবং কার্সিয়াং ও পূর্ব বর্ধমানে জুভেনাইল বোর্ডের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী

- Advertisement -