পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিদ্যুৎ চুরি রুখতে এবার অভিনব পন্থা রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন নিগমের  

374

বর্ধমান, ১২ ফেব্রুয়ারিঃ হুকিং করে বিদ্যুৎ চুরির দায়ে জেল জরিমানাও কম হচ্ছে না। কিন্তু এতকিছুর পরেও পুরো মাত্রায় রোখা যায়নি পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিদ্যুৎ চুরি। জেলার বৈধ গ্রাহকদের সিংহভাগও বিদ্যুৎতের সঠিক ব্যবহার বিধি নিয়ে সচেতন নন। তার ফলে  বিদ্যুৎতের আপচয়ও ঘটছে। এই উভয় সংকট কাটিয়ে বিদ্যুৎ পরিষেবা ব্যবস্থাকে আরও সুদূর প্রসারী করে তুলতে এবার অভিনব পন্থা নিল রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন নিগম। সেই অনুযায়ী শুরু হয়েছে নিগমের উদ্যোগে গ্রামে গঞ্জে খেলাধুলো ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন। খেলার মাঠে দর্শক ভিড় বাড়ার পরেই আধিকারিকরা  বিদ্যুৎ চুরি বন্ধের প্রচার যেমন চালাচ্ছেন তেমনই বিদ্যুৎতের সঠিক ব্যবহার বিধির বিষয়টিও জনসমক্ষে  তুলে ধরছেন। এমন সচেতনতা কর্মসূচি আয়োজনে এই  জেলায় সব থেকে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে  মেমারি ডিভিশানের অন্তর্গত জামালপুর গ্রাহক পরিষেবা কেন্দ্রের আধিকারিকরা। বিদ্যুৎ বন্টন নিগমের এমন জনসংযোগ কর্মসূচিতে বিদ্যুৎ চুরি কতটা বন্ধ হল তার উত্তরের অপেক্ষায় রয়েছেন জামালপুরবাসী। গ্রাহক সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে প্রথম ধাপে বিদ্যুৎ দপ্তরের জামালপুর  গ্রাহক পরিষেবা কেন্দ্রের আধিকারিকরা একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করেন। জামালপুরের সব থেকে জনবহুল এলাকার নেতাজী অ্যাথলেটিক ক্লাব মাঠে টুর্নামেন্টটি অনুষ্ঠিত হয়। তথ্য ও ছবি সহযোগে তৈরি বিদ্যুৎ সচেতনতা সংক্রান্ত নানা ব্যানার ও ফেস্টুন মাঠের দর্শক আসনের  জায়গার চারপাশে লাগানো হয়। বিদ্যুৎ  দপ্তরের  মেমারি ও শক্তিগড় ডিভিশনের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা ছাড়াও জামালপুর ব্লকের বিডিও, ওসি এবং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রমুখরা মাঠে উপস্থিত থাকেন। বিদ্যুৎ দপ্তরের সকল স্তরের কর্মীরা টিম তৈরি করে ডাব্লুবিএসিডিসিএল লেখা জার্সি পরে খেলায় অংশ নেন। খেলা দেখতে মাঠে দর্শক ভিড় উপচে পড়ার পরেই বিদ্যুৎ চুরি সংক্রান্ত আইনি শাস্তি ও বিদ্যুৎ ব্যবহার সংক্রান্ত সচেতনার বিষয়টি জনসমক্ষে তুলে ধরেন আধিকারিকরা।
এমন কর্মসূচির আয়োজন প্রসঙ্গে জামালপুরের বিদ্যুৎ গ্রাহক পরিষেবা কেন্দ্রের এসএম বিদ্যুৎ কুমার সাহা বলেন, ‘বিদ্যুৎ নিয়ে সাধারণ মানুষজনকে সচেতন করতেই এমন উদোগ নেওয়া হচ্ছে। মূলত খেলা ও  সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জনগনের একেবারে কাছে পৌঁছে গিয়ে বিদ্যুৎ নিয়ে সচেতনতা প্রচার চালানোই এই কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য’।

 

- Advertisement -