আরারিয়াতে চুরি যাওয়া ট্রাক উদ্ধার বক্সিরহাটে

120

কিশনগঞ্জ ২৮ মে: আরারিয়া জেলার জউকিহাটের চারঘরিয়া চক থেকে বৃহস্পতিবার রাতে একটি ১৪ চাকা ট্রাক দুষ্কৃতীরা চুরি ছিনতাই করে। আবার সেই রাতেই কিশনগঞ্জের বাহাদুরগঞ্জ থানার গুয়াবাড়ী চকের কাছে ৩২৭ (ই) নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে চোরাই ট্রাকটির চালককে মারধর করে, রশি বাঁধা অবস্থায় ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। অবশ্য ভোর-রাতে বাহাদুরগঞ্জ থানার মোবাইল ভ্যানের পুলিশ কর্মীরা আহত ট্রাক চালককে উদ্ধার করেন। পরে, তাকে বাহাদুরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু, কিশনগঞ্জ পুলিশের তৎপরতায় রাজস্থান নম্বরের ট্রাকটিকে কোচবিহার জেলার বক্সিরহাট থানার পুলিশ উদ্ধার করে বলে কিশনগঞ্জের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক আনোয়ার জাবেদ আনসারি জানান। সূত্রে জানা গিয়েছে, বক্সিরহাট পুলিশ এই ঘটনায় অভিযুক্ত ২ জন দুষ্কৃতীকে ৯০ হাজার টাকা সমেত গ্রেপ্তার করেছে।

জানা গিয়েছে, ওই ট্রাকটিতে জিপিএস ট্র্যাকার লাগান ছিল। কিশনগঞ্জ জেলার পুলিশ আহত ট্রাক চালককে উদ্ধারের পরেই রাজস্থানের ট্রাক মালিককে চুরির খবর দেয়। আর ট্রাকে জিপিএস লাগানো থাকার ফলে, পুলিশ ও মালিক আরজে ১৪জি জে ৫১২৭ নম্বরের ট্রাকটি বক্সিরহাট চেকপোস্টের কাছে দাঁড়িয়ে আছে বলে জানতে পারেন। কিশনগঞ্জ পুলিশ বক্সিরহাট পুলিশের সাহায্যে ট্রাকটিকে উদ্ধার করেছে। যদিও, ঘটনাস্থলে বক্সিরহাট পুলিশ চোরাই ট্রাকটি সহ ২ জন দুষ্কৃতীকে ৯০ হাজার টাকা সমেত ঘটনাস্থলে গ্রেপ্তার করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে জউকিহাটের ভুট্টা ব্যাবসায়ী হাজী নূর সালামের ভুট্টা ভিনরাজ্যে পাঠানোর জন্য ট্রাকে বোঝাই করা হচ্ছিল। সেই রাতে প্রবল বৃষ্টির জন্যে ভুট্টা বোঝাই বন্ধ করতে হয়। তাই, ট্রাক চালক কেবিনের মধ্যে শুয়ে পড়েন।

- Advertisement -

অভিযোগ, সেই রাতেই বেশকিছু দুষ্কৃতী ট্রাকের কেবিনের দরজা ভেঙে ট্রাকটি ছিনতাই করে। চালক এই ঘটনার প্রতিবাদ করায়, তাঁকে রশি দিয়ে বেঁধে প্রচণ্ড মারধর করা হয়। পরে, তাঁকে কিশনগঞ্জ জেলার গুয়াবাড়ী পুলের কাছে আহত অবস্থায় ফেলে দেওয়া হয়। জউকিহাটের ব্যবসায়ী হাজী নূর সালাম এদিন আরারিয়া জেলার মহকুমা পুলিশ আধিকারিক পুস্কর কুমারের কাছে জউকিহাটের পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। সেইরাতে জউকিহাটের পুলিশ ট্রাক চুরির অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে বলে সূত্র জানিয়েছে।