ইটাহার, ২০ মার্চঃ এক স্কুলছাত্রকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ইটাহার থানার দুর্গাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেলডাঙ্গি গ্রামে। আহত ছাত্রের নাম সুজাউদ্দিন আহমেদ। সে রাজগ্রাম উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম বিমল বর্মন। তিনি একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার সুজাউদ্দিন তার বন্ধুদের সঙ্গে টিউশন পড়ে সাইকেল করে বাড়ি ফিরছিল। বেলডাঙ্গি এলাকায় বিমলের বাইকের সঙ্গে সুজাউদ্দিনের সাইকেলের সংঘর্ষ হয়। দু’জনের মধ্যে বচসা শুরু হয়। এরপরই বিমল সুজাউদ্দিনকে বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। আহত সুজাউদ্দিনকে উদ্ধার করে ইটাহার ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায় তার বন্ধুরা। পরে তাকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করেন চিকিত্সকরা।

এই ঘটনায় আহত ছাত্রের পরিবারের তরফে ইটাহার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও অভিযুক্ত শিক্ষক বিমল বর্মন বলেন, ‘ওই ছাত্র ইচ্ছাকৃতভাবে আমার বাইকে ধাক্কা মেরেছে। আমি ওই ছাত্রকে মারধর করিনি। আমাকে ফাঁসানোর জন্য পরিকল্পনা নিয়েছে ওই ছাত্রের পরিবার।’ ইটাহার থানার পুলিশ আধিকারিক জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে।

সংবাদদাতাঃ বিশ্বজিৎ সরকার