ক্লাস নাইনের ছাত্র পড়াশোনা ছেড়ে এখন ফেরিওয়ালা

145

চোপড়া : মালদার কালিয়াচক থেকে এসে চোপড়া ব্লকের গ্রামে গ্রামে কাপড় বিক্রি করছে নবম শ্রেণির ছাত্র কাউসার আলি। করোনার জেরে টানা কয়েক মাস স্কুল বন্ধ থাকায় কার্যত বন্ধ তার পড়াশোনা। টিউশন পড়ার মতো সামর্থ্য নেই বলে অন্য জেলায় এসে ফেরি করে বেড়াচ্ছে ওই পড়ুয়াটি। চোপড়া ব্লকে সোনাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ধামিগাছে এখন বাবার সঙ্গে ঘর ভাড়া নিয়ে থাকছে কাউসার। তার বক্তব্য, বাবা আগে থেকে এই এলাকায় ফেরিওয়ালার কাজ করতেন। স্কুল বন্ধ থাকায় আমি বাবার কাজে সহযোগিতা করছি। স্কুল খুললে বাড়ি ফিরব। কাউসারের বাবা জাকির হুসেন এখন অবশ্য কালিয়াচকে। তিনি বলেন, দুদিন হল বাড়ি এসেছি। ছেলের স্কুল বন্ধ থাকায় আপাতত চোপড়ার সোনাপুর এলাকায় থাকছি। চার ভাইবোনের মধ্যে বড় ছেলে কাউসার। অনটনের সংসারে টিউশন পড়ানোর সামর্থ্য নেই। কাউসার জানিয়েছে, নতুন কাপড় ফেরি করে দিনে প্রায় ২০০ টাকা রোজগার হয়। টাকা জমিয়ে একটি স্মার্ট ফোন কেনার ইচ্ছে রয়েছে তার।