মার্চেই সিমেস্টারের পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে পড়ুয়ারা

117

রায়গঞ্জ: মার্চেই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের বিভিন্ন সিমেস্টারের পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামলেন রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। সোমবার তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক ড. শুভময় ভৌমিকের সঙ্গে দেখা করেন। প্রসঙ্গত, রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরের প্রথম, তৃতীয়, পঞ্চম ও স্নাতকোত্তরের প্রথম ও তৃতীয় সিমেস্টারের পরীক্ষা আগামী ২০ মার্চের পর শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ৪ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নোটিশ জারি করে বলে, ওই পরীক্ষা শুরু হবে ২ মে। কিন্তু ২ মের পর পরীক্ষা শুরু হলে তাঁদের শিক্ষাবর্ষ অনেকটাই পিছিয়ে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পড়ুয়ারা।

জ্যোতির্ময় সেন, অমৃত বিশ্বাস সহ অন্য ছাত্রছাত্রীদের বক্তব্য, পরীক্ষা যদি পিছিয়ে গিয়ে মে মাসে হয় সেক্ষেত্রে স্নাতক স্তরের ছাত্রছাত্রীদের সেশন পিছিয়ে যেতে পারে। আর সেশন যদি পিছিয়ে নাও যায় সেক্ষেত্রে চূড়ান্ত সেমিস্টারের জন্য সময় পাওয়া যাবে মাত্র এক থেকে দেড় মাস। ছাত্রদের প্রশ্ন, ছয়মাসের কোর্স একমাসের মধ্যে কীভাবে শেষ করা সম্ভব? স্নাতক স্তরের পাশাপাশি স্নাতকোত্তর স্তরের ছাত্রছাত্রীদের সেশনও পিছিয়ে যেতে পারে। রাজ্যের অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলি যেখানে মার্চের মধ্যেই পরীক্ষা নেবে, সেখানে তাঁদের বিশ্ববিদ্যালয় কেন মার্চে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এল সেটাই বুঝতে পারছেন না পড়ুয়ারা। মার্চ মাসের মধ্যেই পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে এদিন বিভিন্ন সিমেস্টারের ছাত্রছাত্রীরা পরীক্ষা নিয়ামক স্যারের সঙ্গে দেখা করতে এসেছেন।

- Advertisement -

রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক ড. শুভময় ভৌমিক বলেন, ’ছাত্রছাত্রীদের দাবি মতো স্নাতকস্তরের পঞ্চম এবং স্নাতকোত্তর স্তরের তৃতীয় সিমেস্টারের পরীক্ষা ২০ মার্চের পর থেকে শুরু করার চেষ্টা চলছে। খুব শীঘ্রই ওই দুই সিমেস্টারের পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করা হবে। সমস্ত পরীক্ষা অনলাইনেই হবে বলে জানান তিনি। যদিও স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের বাকি সিমেস্টারের পরীক্ষা কবে হবে, সেই বিষয়ে শুভময়বাবু কোনও মন্তব্য করতে চাননি।‘