ট্যাবের টাকা না মেলায় স্কুলে বিক্ষোভ ছাত্রদের, কী হল তারপর জানুন

105

সিউড়ি: ঘোষনার পর কেটে গিয়েছে প্রায় কয়েক মাস। তারপরেও মেলেনি সরকারের ঘোষিত ট্যাবের টাকা। দ্বাদশ শ্রেণির এগারো জন পড়ুয়া এখনও সরকারি সুবিধা থেকে বঞ্চিত। স্কুল কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতেই তারা ট্যাব পায়নি, এই অভিযোগ তুলে শুক্রবার স্কুলে রীতিমত ধুন্ধুমার বাঁধিয়েছে ওই পড়ুয়ারা। চিৎকার, চেঁচামেচি, প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে বচসা বেঁধে যায় তাদের। পরে সেই প্রধান শিক্ষকের আশ্বাসে ফিরে যায় ছাত্ররা।সিউড়ি চন্দ্রগতি উচ্চ  বিদ্যালয়ের এই ঘটনায় এদিন চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। দ্বাদশ শ্রেণীর  ১২৬ জন পড়ুয়া নাম ট্যাব প্রাপক হিসাবে নির্দিষ্ট সময়ে রাজ্য সরকারের পোর্টালে আপলোড করে দেওয়া হয়েছিল বলেই দাবি করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক। কিন্তু সেই ১২৬ জন পড়ুয়ার মধ্যে এগারো জন পড়ুয়ার নাম অজান্তেই বাদ চলে গিয়েছে তালিকা থেকে। বঞ্চিত পড়ুয়াদের অভিযোগ, বারংবার স্কুল, প্রধান শিক্ষকের দ্বারস্থ হয়েও কোন সুরাহা হয়নি।

 প্রধান শিক্ষক পবিত্র দাসবক্সি বলেন, ‘আমরা ১২৬ জনের নামই নির্দিষ্ট পোর্টালে নির্দিষ্ট সময়েই আপলোড করেছিলাম। কিন্তু শিক্ষাবর্ষের অন্তর্ভূক্তির জায়গায় কয়েকজনের ক্ষেত্রে ভুলবশত ত্রুটি হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই উর্ধ্তন কর্তৃপক্ষের নির্দেশমত আমরা সেই ১১ জনের নাম ফের  স্কুল পরিদর্শকের দপ্তরে পাঠাই। কিন্তু তার পরিপ্রেক্ষিতে এখনও কোনও উত্তর আসেনি। ঠিক করেছি আগামী সোমবার বিষয়টি জেলা স্কুল পরিদর্শকের দপ্তরে যাব। পড়ুয়ারা চাইলে তারাও যেত পারে।‘

- Advertisement -