পক্ষীনিবাসের পাহারায় পড়ুয়ারা

155

রায়গঞ্জ: কুলিক পক্ষীনিবাসের পাখি ও গাছ রক্ষায় নিয়মিত পাহারা দেয় বনবস্তির শিশুরা। এরা কেউ পঞ্চম শ্রেণিতে, আবার কেউ ষষ্ঠ বা সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। করোনা অতিমারির কারনে এক বছরের বেশি সময় ধরে স্কুল বন্ধ থাকায় দিনের অধিকাংশ সময় তারা পক্ষীনিবাসের জঙ্গলের ভিতরেই তাদের সময় কাটে। বাইরে থেকে কেউ পাখি শিকার করতে আসলে বা নদীতে নোংরা ফেলা দেখলেই তারা বাধা দেয় এবং আটকে রাখে। আবার কাঠ চোরের দলও ফরেস্টে ঢুকতে পারেন না। শিশুদের দাবি,পাখি শিকার করতে এসে অনেকেই তাদের হাতে ধরা পড়েছে। কাঠচোরের দলকে ধাওয়া দিয়ে জঙ্গল থেকে বের করে দিয়েছি। তবে যে গাছগুলি শুকনো হয়ে পড়ে যায় সেগুলি তারা জ্বালানির জন্য  বাড়িতে নিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা অনেকক্ষেত্রে বনদপ্তরকে সাহায্য করে বলে দাবি বনবিভাগের কর্মীদের। রায়গঞ্জ কুলিক পক্ষীনিবাসের বিট অফিসার বরুনকুমার সাহা বলেন, ‘পক্ষীনিবাসের আশেপাশে এলাকার ছোটো ছেলেরা আগে দুষ্টু ছিল।তাদের নিয়মিত  বোঝানোর ফলে এখন তারা আমাদের স হযোগিতা করে এবং বিভিন্ন খবর দেয়। আগামীদিনে তাদের নিয়ে অবশ্যই ভাবা হবে। তবে এর আগে আমরা তাদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য ফুটবল দিয়েছি।‘

- Advertisement -