নয়ন রায়, সোনাপুর : আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের বাবুরহাটের কদমতলা জুনিয়ার হাইস্কুলে খোলা মাঠের নীচে পড়ুয়াদের মিড-ডে মিল খাওয়ানোর অভিযোগ উঠল। ওই ঘটনায় পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অভিভাবকরা। এদিকে, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, কয়েকদিন স্কুলে পরীক্ষা চলায় শ্রেণিকক্ষে জায়গার অভাবের জন্য ওই সমস্যা তৈরি হয়েছে। পরীক্ষা মিটে গেলেই পড়ুয়াদের ফের ঘরে বসে মিড-ডে মিল খাওয়ানো হবে। এই পরিস্থিতিতে স্কুল প্রাঙ্গণে ডাইনিং শেড তৈরিরও দাবি উঠছে।

কদমতলা জুনিয়ার হাইস্কুলটি ২০১০ সালে চালু হয়। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলে মোট ছাত্রছাত্রী রয়েছে ৭২ জন। শিক্ষক-শিক্ষিকা রয়েছেন ৪ জন। বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল রান্নার জন্য প্রযোজনীয় জাযগা থাকলেও বাচ্চাদের খাওয়ার জন্য ঘর নেই। বাধ্য হয়ে একটি ক্লাসরুমেই পড়ুয়াদের মিড-ডে মিল খাওয়ানো হয়। এক অভিভাবক দিলীপ মুন্ডা বলেন, এখন অনেক স্কুলেই মিড-ডে মিল খাওয়ানোর জন্য নির্দিষ্ট জায়গা রয়েছে। কিন্তু এই স্কুলে তা নেই। অপর এক অভিভাবক চৈতন্য বসাক বলেন, দ্রুত স্কুলে ডাইনিং শেড তৈরি করা হোক।

- Advertisement -

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক রাকেশ দে বলেন, আমরা বরাবরই বাচ্চাদের ঘরের ভিতরেই মিড-ডে মিল খাওয়াই। তবে হলঘরে অন্যান্য ক্লাসের পরীক্ষা চলার কারণে তারা বাইরে খেয়েছে। বিদ্যালয়ে ডাইনিং শেড তৈরি করে দেওয়ার আবেদন জানিয়ে বিদ্যালয় পরিদর্শকের কাছে কাগজপত্রও জমা দেওয়া হয়েছে বলে রাকেশবাবু জানান। আলিপুরদুয়ার পশ্চিম মণ্ডলের সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয় পরিদর্শক এহসান মহম্মদ হাবিব বলেন, সংশ্লিষ্ট মণ্ডলের কয়েকটি স্কুলের ডাইনিং শেড তৈরির জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ এলেই স্কুলগুলি শেড পেয়ে যাবে।