তত্ত্ব আদান-প্রদান অনুষ্ঠান থেকে বিরত বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা

160

বর্ধমান: দীর্ঘদিন ধরেই সরস্বতী পুজোর পরের দিন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলাপবাগ ক্যাম্পাসে ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র এক অন্যরূপ দেখে আসছিলেন বর্ধমানবাসী। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলাপবাগ মোড় থেকে কৃষ্ণসার পার্ক পর্যন্ত যে রাস্তা গিয়েছে তার দুই ধারে রয়েছে একাধিক ছাত্র নিবাস। আর গোলাপবাগ সংলগ্ন তারাবাগ ক্যাম্পাসে রয়েছে একাধিক মহিলা ছাত্রী নিবাস। আগে প্রতিবছর সরস্বতী পুজোর অনেক আগে থেকেই ব্যস্ততা শুরু হয়ে যেত সেখানকার হোস্টেলের ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে। প্রতিটি হোস্টেলেই ঘটাকরে হত সরস্বতী পুজো। এছাড়াও সরস্বতী পুজোর পরদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলের ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে তত্ত্ব আদান প্রদান হত।

ছাত্রীরা সেছেগুজে ঢাকের বাদ্যি সহযোগে তত্ত্ব দিতে যেতেন ছাত্রদের হোস্টেলে। একই কায়দায় পালটা ছাত্ররাও তত্ত্ব দিতে যেতেন ছাত্রীদের হোস্টেলে। সবমিলিয়ে ওই দিনটায় গোলাপবাগ ক্যাম্পাস থাকত অন্য রুপের ভ্যালেন্টাইন্স ডের আবহ। কিন্তু করোনার কারণে এবছর সবই ম্লান থাকল। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতি মনিকাঞ্চন মণ্ডল এদিন জানান, কোভিড অতিমারীর কারণে এবছর পুরোনো ঐতিহ্যে দাঁড়ি টানতেই হয়েছে। তার জন্য মন খারাপ হলেও পড়ুয়ারা সবাই পরিস্থিতি বিবেচনা করে তত্ত্ব আদান প্রদান অনুষ্ঠান পালন থেকে নিজেদের বিরত রেখেছে।

- Advertisement -