প্রাক্তন কোচ কোয়েম্যানকে সুয়ারেজের খোঁচা

মাদ্রিদ : অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে লা লিগা জিতে বিস্ফোরক লুইস সুয়ারেজ। স্পেনের একটি রেডিওয় দেওয়া সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনা বস রোনাল্ড কোয়েম্যানকে ঘুরিয়ে ভিতু বললেন উরুগুয়ে এই স্ট্রাইকার। পাশাপাশি জানালেন, লিওনেল মেসিকে বার্সার জার্সিতেই দেখতে চান।

মরশুমের শুরুতে কোয়েম্যান কোচ হয়ে আসার পরই বার্সা থেকে সুয়ারেজকে বিদায় জানানো হয়। সেই প্রসঙ্গে সুয়ারেজ বলেন, আমাকে মূল দলের সঙ্গে অনুশীলন করতে দেওয়া হয়নি। আলাদাভাবে অনুশীলন করতাম। এমনকি প্রাক-মরশুম ফ্রেন্ডলি ম্যাচের দলেও নেওয়া হয়নি। এর পুরোটাই কোয়েম্যান আমাকে বলেন। সঙ্গে এও বলেন, ক্লাবের পরিচালকদের নির্দেশ মেনে তিনি আমাকে এসব বলছেন। এরপর কোয়েম্যান জানান, যদি আমাকে অন্য ক্লাবে না পাঠানো যায় তবে লা লিগার প্রথম ম্যাচে ভিয়ারিয়ালের বিরুদ্ধে আমি খেলব। আসলে ওর (কোয়েম্যান) সৎসাহস নেই। তাই ও আমাকে সরাসরি অপছন্দ করার কথা বলতে পারেনি।

- Advertisement -

 ক্লাব ছাড়তে বাধ্য হওয়ার জন্য কোয়েম্যানকে কোনও দোষ দেননি সুয়ারেজ। তবে প্রাক্তন সভাপতি জোসেফ মারিও বার্তোমিওকে একহাত নিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি সবসময় ক্লাবের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। কিন্তু কর্তারা, বিশেষত সভাপতি আমাকে ব্যবহার করেছেন। তিনি সরাসরি সাংবাদিকদের কাছে মুখ খুলেছেন। অথচ তিনি আমাকে ফোন করে বলতে পারতেন যে ক্লাব আমাকে রাখতে রাজি নয়! এর আগে তো ওরা বহুবার আমাকে ফোন করেছে। যখন মেসিকে ক্লাবে থাকতে রাজি করানোর দরকার ছিল! যখন (আন্তোয়ান) গ্রিয়েজম্যানকে অ্যাটলেটিকো থেকে বার্সায় আসার জন্য রাজি করানোর দরকার ছিল! ওরা আমাকে ছাড়ার আগে কোনও ফোন করেনি। অথচ উচিত ছিল আমাকে ফোন করে গোটা বিষয়টা জানানো। সুয়ারেজ লিগ জেতার পর কোয়েম্যান বা বার্তোমিওর থেকে কোনও শুভেচ্ছাবার্তা পাননি। তবে ট্রফি হাতে নিজের ছবি তাঁদের পাঠানোর কথা ভেবেছিলেন।

আসন্ন দলবদলের বাজারে ফ্রি এজেন্ট হিসেবে অন্য ক্লাবে যেতে পারেন মেসি। আর্জেন্টানই মহাতারকার সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্ব খুবই ভালো। এমনকি রিয়াল ভালাদোলিদের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে নামার আগে মাদ্রিদের এক রেস্তোরাঁয় তাঁরা একসঙ্গে দুপুরের খাবার খেয়েছেন। মেসির দলবদল প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, একজন বন্ধু ও অনুরাগী হিসেবে আমি ওকে বার্সায় দেখতে চাই। আমি ওকে এই পরামর্শই দিতাম। তাঁর বদলি হিসেবে সের্জিও আগুয়েরোকে সই করাতে চলেছে বার্সা। এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন সুয়ারেজ।