Breaking: জল্পনা বাড়িয়ে মন্ত্রীত্ব ছাড়লেন শুভেন্দু অধিকারী

0

কলকাতা ও কোচবিহার: মন্ত্রীত্ব ছাড়লেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী তথা দাপুটে তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারী। কয়েকদিন ধরেই তাঁর রাজনৈতিক ভবিষ্যত ও বিজেপিতে যোগদান নিয়ে জল্পনা চলছিল। সেই জল্পনা আরও বাড়িয়ে এদিন শুভেন্দু অধিকারী মন্ত্রীত্ব ছাড়লেন। সূত্রের খবর, শুভেন্দু অধিকারী শনিবার দিল্লি যাচ্ছেন।

মন্ত্রীত্ব ছাড়ার বিষয়ে শুভেন্দু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়কে চিঠি দিয়েছেন। পদত্যাগপত্র গ্রহণের জন্য তিনি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন।

- Advertisement -

চিঠিতে শুভেন্দু অধিকারী লিখেছেন, ‘আমি মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা দিচ্ছি। পদত্যাগপত্র দ্রুত গ্রহণের আর্জি জানাচ্ছি। আমায় সাধারণ মানুষের সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।’

এদিকে, জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শুক্রবার সকালে কোচবিহারের বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিকের সঙ্গে দিল্লি পৌঁছে গিয়েছেন কোচবিহার দক্ষিণের ‘অভিমানী’ তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী। এদিন বিকেলে মিহিরবাবু সাংসদের সঙ্গে দিল্লিতে বিজেপির কার্যালয়ে যাবেন। সবকিছু ঠিক থাকলে সেখানে এদিনই তাঁর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, দলের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে গত ৩ অক্টোবর দলের সমস্তরকম সাংগঠনিক পদ থেকে নিজের অব্যাহতি ঘোষণা করেছিলেন বিধায়ক মিহির গোস্বামী। এরপর থেকেই তিনি দলের সঙ্গে আর কোনওরকম যোগাযোগ রাখেননি। তবে দলের সঙ্গে যোগাযোগ না রাখলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় আবার কখনও বা সাংবাদিক বৈঠক করে প্রকাশ্যে তৃণমূলের জেলা ও রাজ্য নেতৃত্বের কঠোর সমালোচনা করছিলেন।

মিহিরবাবু তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি ও তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করতেও ছাড়েননি। এসব নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে বেশ কিছুদিন ধরেই তোলপাড় চলছে।

একইভাবে রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন সভায় অংশ নিলেও তাঁকে তৃণমূলের কোনও সভায় দেখা যায়নি। নাম না করে তাঁকে দলের বিভিন্ন নেতার সমালোচনা করতে দেখা গিয়েছে। মিহিরবাবুর পথে হেঁটে শুভেন্দুবাবুও মন্ত্রীত্ব ছাড়লেন। মিহিরবাবু দিল্লি পৌঁছে গিয়েছেন। সূত্রের খবর, শুভেন্দু অধিকারীও শনিবার দিল্লি যাচ্ছেন।