নিকাশির অভাবে জলমগ্ন খেলার মাঠ, ক্ষোভ এলাকাবাসীর

301

চাঁচল: নিকাশির অভাবে প্রায় ছয়মাস ধরে জলমগ্ন চাঁচল-১ ব্লকের কলিগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠটি।কলিগ্রাম হাই স্কুলের ওই খেলার মাঠটির আয়তন প্রায় সাড়ে ছয় বিঘা। কিন্তু বর্তমানে হাঁটু সমান জল রয়েছে।খেলার মাঠটি দেখলে মনে হয় জলাশয়। খেলার মাঠের এই বেহাল দশায় খেলাধুলো বন্ধ। এনিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে।

কলিগ্রামের বাসিন্দাদের কাছে খেলাধুলো ও শরীরচর্চার জন্য এই কলিগ্রাম হাইস্কুলের মাঠটি অন্যতম ভরসা এলাকার ক্রীড়া প্রেমীদের জন্য। কলিগ্রাম অঞ্চলের প্রায় দশটি গ্রামের মানুষ এই মাঠের ওপর নির্ভরশীল।এলাকার সব অনুষ্ঠান ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এই মাঠেই হয়ে থাকে। এছাড়াও এলাকার শিশু-কিশোর, স্কুলের শিক্ষার্থীরা এখানে খেলাধুলো করে থাকে। নিয়মিত খেলতে না পারায় হতাশ বিভিন্ন শিক্ষার্থী ও এলাকার খেলোয়াড়রা।

- Advertisement -

কলিগ্রাম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক দীপক রায় জানান, খেলার মাঠের ঐতিহ্য ফেরানোর জন্য নিকাশি নালা নির্মাণ, মাটি ভরাট ও আলোর ব্যবস্থার জন্য কলিগ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান, চাঁচল-১ বিডিও, চাঁচল এসডিও সকলকে লিখিতভাবে বেশ কয়েকবার জানানো হয়েছে। কিন্তু মাঠের কোনও হাল ফেরেনি। বারবার স্থানীয় পঞ্চায়েত ও ব্লক প্রশাসনের কাছে আবেদন করা হয়েছে মাঠটির সৌন্দর্যায়নের জন‍্যও। কিন্তু প্রশাসনের কোনও হেলদোল নেই।

কলিগ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রেজাউল খান বলেন, ‘মাঠটি রাস্তা বরাবর করলে প্রচুর মাটি লাগবে। তাই একশো দিন প্রকল্প থেকে কলিগ্রাম খেলার মাঠের মাটি ভরাটের জন্য স্কিম ধরা হবে। সরকারি অনুমোদন মিললে খুব শীঘ্রই মাঠে মাটি ভরাটের কাজ করা হবে।’ চাঁচল-১ ব্লকের বিডিও সমীরণ ভট্টাচার্য জানান, কলিগ্রাম মাঠের বিষয়টি তাঁর নজরে রয়েছে। এমজিএনআরইজিস প্রকল্পে ফুটবল মাঠটিতে মাটি ভরাটের জন্য পঞ্চায়েত থেকে স্কীম ধরা হবে।