রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদে মমতা ছাড়া অন্য কোনও মুখ নেই: সুব্রত

135

কলকাতা: এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদের জন্য বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া অন্য কোনও মুখ নেই। তাই বাংলার মানুষ পুনরায় মমতাকেই মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। শনিবার তৃণমূল ভবনে ‘বাংলার গর্ব মমতা’র পর ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ এই স্লোগানের উদ্বোধন করতে গিয়ে এমনটাই জানালেন রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

সুব্রতবাবু জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ত্যাগ স্বীকার করে কাজ করেন। নারী উন্নয়নের জন্য সবার আগেই চেষ্টা করেন। শুধু তাই নয়, আমপান সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের স্থায়ী বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন। করে দিয়েছেন ৩৪ লক্ষ্য গ্রামীণ অঞ্চলে গৃহহীন মানুষদের জন্য আবাসন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একমাত্র রাজ্যেই পঞ্চায়েতের ৩৫ শতাংশ আসন মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত করেছেন বলে দাবি করেন সুব্রতবাবু। তাঁর মতে, শুধু তৃণমূল কংগ্রেসেরই নয়, বাংলার মানুষের কাছে একটাই মুখ। সেটা হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

- Advertisement -

সুব্রতবাবু বলেন, ‘বাংলার মানুষের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের আত্মীক সম্পর্ক রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর তাই সবকিছুর ঊর্ধ্বে গিয়ে ১০ বছর ধরে মানুষের কল্যাণের স্বার্থে কাজ করে গিয়েছেন। মানুষের দল-মত নির্বিশেষে সমগ্র রাজ্যবাসীর মনের কথা বুঝে তাঁদের সমস্ত দায়িত্ব মুখ্যমন্ত্রী নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। সেকারণেই এরাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিকল্প আর কেউ হতে পারে না।’ সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভিনরাজ্যের কোনও ব্যক্তি নয়, এরাজ্যের মেয়েই হবেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাই ভিনরাজ্যের কোনও ব্যক্তিকে যাঁরা এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী করার স্বপ্ন দেখছেন তাঁদের সেই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে। তাই বাংলার মেয়েই হবেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।’

পাশাপাশি, সুব্রতবাবু জানান, কৃষি সহ সর্বস্তরে রাজ্যের সাফল্য এনে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই মমতা যেমন সাধারণ মানুষকে নিজের করে নেন, তেমনি সাধারণ মানুষও তাঁদের মনের মণিকোঠায় মমতাকেই স্থান দিয়ে রেখেছেন।

এর আগে প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শক্রমে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল। এরপর ওঠানো হয় ‘বাংলার গর্ব মমতা’ স্লোগান। তারপর ‘স্বাস্থ্যসাথী কার্ড’ ও ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির পর এবার তৃণমূলের তরফে তোলা হল ‘বাংলা নিজের মেয়ে কেই চায়’ স্লোগান। লাগাতার ভিনরাজ্য থেকে এরাজ্যে প্রচারে আসা বিজেপি নেতাদের বহিরাগত আখ্যা দেওয়ার পর আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এদিন ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ স্লোগানকে নিয়েই তৃণমূল কংগ্রেস আগামীদিনে নির্বাচনের সম্মুখীন হতে চলেছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।