শুভমানকে প্রত্যাশার চাপ কাটানোর টিপস গাভাসকারের

মুম্বই : জাতীয় দলের জার্সিতে দুর্দান্ত অস্ট্রেলিয়া সফর।

২০২০-র আইপিএলে সাফল্য পেয়েছেন। যদিও স্থগিত হয়ে যাওয়া একুশের লিগে উলটো ছবি। নাইট রাইডার্সের হয়ে আটটি ম্যাচে ওপেন করেও হাফ সেঞ্চুরি নেই শুভমান গিলের। করেছেন ০, ১৫, ৩৩, ২১, ০, ১১, ৯ ও ৪৩। প্রত্যাশার চাপকেই এরজন্য দায়ী করেছেন সুনীল গাভাসকার। কিংবদন্তি ওপেনারের মতে, অজি সফরে ভালো খেলার ফলে শুভমানের থেকে প্রত্যাশা বেড়েছে সমর্থকদের। যে চাপটাই মূল সমস্যা।

- Advertisement -

সুনীল বলেন, অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে এই প্রত্যাশার চাপটা ছিল না। একজন উঠতি ক্রিকেটার হিসেবে ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় সাফল্যের পর প্রত্যাশা বেড়েছে শুভমানকে নিয়ে যা ওকে চাপে ফেলে দিচ্ছে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে হওয়া ২০২০-র লিগে ৪৪০ রান করেন নাইটদের হয়ে। তারপর অজি সফরে সাফল্য। কিন্তু এবারের লিগে তা হয়নি। গাভাসকার কার্যত সেই কথাটাই তুলে ধরেছেন।

তরুণ তুর্কিকে ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠার রাস্তাও বাতলে দিয়েছেন গাভাসকার। শুভমানের জন্য তাঁর পরামর্শ, ওর শুধু রিল্যাক্সড থাকা দরকার। সবে ২১ বছর বয়স। ব্যর্থতা আসবে। আর ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নিতে হবে। ওপেন করুক এবং প্রত্যাশার চাপ ঝেড়ে নিজের সহজাত ক্রিকেট খেলুক। রান ঠিক চলে আসবে। অ্যাক্রস দ্য লাইন শট খেলছে, প্রতিটি বলে রানের জন্য ছটফটানি- এটা প্রত্যাশার চাপের কারণে। আর এভাবেই আউট হচ্ছে।

এদিকে, ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন তারকা দেবদূত পাড়িক্কালকে নিয়ে উৎসাহের অভাব নেই। রাজ্য দল কর্ণাটক ও আইপিএলে আরসিবির হয়ে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন বাঁহাতি ওপেনার। অনেকেই ভেবেছিলেন, ভারতীয় দলে ঢুকে পড়বেন। তবে তা হয়নি। আর খুব শীঘ্রই সেই সম্ভাবনা দেখছেনও না এমএসকে প্রসাদ। তারমতে, জাতীয় দলর দরজা খুলতে আরও একটা-দুটো মরশুমে ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে দেবদূতকে।