সব সময় মানুষের কাছে পৌঁছতে পারিনি, ভুল স্বীকার করলেন সুনীল তিরকি

68

ফাঁসিদেওয়া, ২৭ মার্চ: বহুবার ফাঁসিদেওয়ার সদ্য প্রাক্তণ কংগ্রেসের বিধায়ক সুনীল তিরকির বিরুদ্ধে জনসংযোগের বাইরে থাকার অভিযোগ উঠে এসেছিল। এমনকি বিধানসভা নির্বাচন ঘোষণা হয়ে যাওয়ার পরও, প্রচার কিংবা দলীয় কর্মসূচিতে সেভাবে তাঁর দেখা মেলেনি। ২ বারের বিধায়ক নির্বাচিত হয়ে গত ১০ বছরে সাধারণ মানুষের অনেকেই তাঁকে পাশে পাননি এমন অভিযোগ ছিল সুনীল বাবুর বিরুদ্ধে। শনিবার ফাঁসিদেওয়াতে ভোটের প্রচারে এসে এবারের বিধানসভা নির্বাচনে সংযুক্ত মোর্চা মনোনীত প্রার্থী সুনীল তিরকি সেই অভিযোগ একরকম স্বীকার করে নিলেন। সুনীল বাবু বলেন, কোনও বিধায়কই সব সময়, সবজায়গায় উপস্থিত থাকতে পারেন না। তবে, স্বশরীরে উপস্থিত না থেকেও, আমি মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। ব্যক্তিগতভাবে সবসময় সকলের কাছে পৌঁছানো সম্ভব হয় না। এতে আমার কিছু নেই। সাধারণ মানুষের যা কাজ করেছি, সকলেই তা জানেন। তাই, প্রচারে বেরিয়ে মানুষের কাছে আমরা ভালো সাড়া পাচ্ছি। প্রচারে বিলম্বের বিষয়ে প্রশ্ন করা হল প্রার্থীর মন্তব্য, আমরা হয়ত ঝান্ডা লাগাতে পারিনি, কিংবা স্লোগান দিয়ে পথে বেরোতে পারিনি তবে, বুথভিত্তিক প্রচার আমাদের অনেকদিন আগেই শুরু হয়ে গিয়েছে। তিনি আরও বলেন, অনেক কিছু করতে চাইলেও, সময়ের অভাবে সমস্ত কিছু করে ওঠা সম্ভব হয় না। শুক্রবার নমিনেশন সাবমিট করার পরই, পুরোদমে প্রচারকাজ করছি। তাঁর দাবি, ফাঁসিদেওয়া বিধানসভা কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চা কোনও ভাবেই পিছিয়ে নেই। এদিন ফাঁসিদেওয়াতে প্রার্থীর সমর্থনে বাম-কংগ্রেস যৌথ মিছিল করেছে। সিপিএমের ফাঁসিদেওয়া এরিয়া কমিটির কার্যালয় থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে, থানা মোড়, ভক্তিনগর, জ্যোতিনগর হয়ে গোয়ালটুলি মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে, সেখানে গিয়ে একটি পথসভা করা হয়। এদিনের কর্মসূচিতে কংগ্রেসের ফাঁসিদেওয়া সাংগঠনিক ১ নম্বর ব্লক সভাপতি শ্যামল মণ্ডল, সিপিএমের ছাত্র সংগঠনের নেতা সাম্য দেবনাথ সহ সংগঠনের বেশ কয়েকজন জেলা কমিটির সদস্যরাও হাজির হয়েছিলেন।