Cheating

নয়াদিল্লি, ২৭ সেপ্টেম্বরঃ ভারতীয় দণ্ডবিধির পরকীয়া সংক্রান্ত ৪৯৭ ধারাকে অসাংবিধানিক বলে রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, পরকীয়া কখনও অপরাধ হতে পারে না। এই ধারা মহিলাদের পক্ষে অপমানজনক। তবে পরকীয়া সম্পর্কের জেরে যদি জীবনসঙ্গী আত্মহত্যা করে, তাহলে তা আত্মহত্যা প্ররোচনা হিসাবে গণ্য হতে পারে।  এদিন পরকীয়া মামলার রায় দিতে গিয়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র ও বিচারপতি এএম খানউইলকর ও বিচারপতি আরএফ নরিম্যান বলেন, কোনও বিবাহিত মহিলার সঙ্গে কোনও পুরুষ যৌন সংসর্গ করলে তা অপরাধের তালিকায় পড়বে না।পরকীয়া বিবাহবিচ্ছেদের কারণ হলেও অপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে না। তাঁরা বলেন, ৪৯৭ ধারা একটা পুরনো আইন। এটা অসাংবিধানিক এবং এটি বাতিল করা উচিত।
বেঞ্চের আর এক বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় বলেন, এই ধারা মহিলাদের সম্ভ্রম ও আত্মসম্মানের পক্ষে অপমানজনক। কারণ এই আইন মহিলাকে স্বামীর দাস হিসেবে বিবেচনা করে। শীর্ষ আদালতের সাংবিধানিক বেঞ্চের একমাত্র মহিলা বিচারপতি ইন্দু মালহোত্রাও একই মত পোষণ করেন। তিনি বলেন, বৈবাহিক সম্পর্কে স্ত্রী কখনওই স্বামীর ছায়া নন।