‘মুখ্যমন্ত্রী না বিজেপিতে চলে যান’, রানিগঞ্জের সমাবেশে কটাক্ষ সূর্যকান্তের

179

রাজা বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: ‘উনি (রাজ্যর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে দাঁড়াবেন না বিজেপির হয়ে দাঁড়াবেন সেটাই তো এখনও জানি না৷’ মঙ্গলবার আসানসোলের রানিগঞ্জে দলের এক সমাবেশে যোগ দিতে এসে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর নন্দীগ্রামে দাঁড়ানোর প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এভাবেই কটাক্ষ করলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক ডাঃ সূর্যকান্ত মিশ্র৷

এদিন আসানসোলের রানিগঞ্জের বল্লভপুরে সিপিএমের তরফে রবীন সেনের স্মরণে এক সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে রবীন সেনের মূর্তিতে মাল্যদান করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। সমাবেশে অন্যদের মধ্যে ছিলেন আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদ তথা প্রাক্তন মন্ত্রী বংশগোপাল চৌধুরী, সিপিএমের জেলা সম্পাদক গৌরাঙ্গ চট্টোপাধ্যায়, রানিগঞ্জ ও জামুড়িয়ার দুই বিধায়ক রুনু দত্ত ও জাহানারা খান।

- Advertisement -

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সূর্যকান্ত মিশ্রের কটাক্ষ, ‘উনি দু জায়গায় দাঁড়াবেন না দশ জায়গায় দাঁড়াবেন সেটাই তো পরিষ্কার নয়। বাংলায় বিজেপি এখন তৃণমূল কংগ্রেস হয়ে গিয়েছে৷ তৃণমূলই এখন বিজেপিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ৷ তৃণমূল আর বিজেপির মধ্যে পার্থক্যটা কোথায়? পার্থক্য এটাই যে লোকগুলি এদিকে ছিল। এখন ওদিকে চলে গিয়েছে৷ অপেক্ষা করুন, শেষমেশ মুখ্যমন্ত্রীই না চলে যান বিজেপিতে৷’

এদিনের সমাবেশে রাজ্যের প্রাক্তন স্বাস্থ্য মন্ত্রী বিভিন্ন ইস্যুতে একযোগে কেন্দ্র সরকার ও রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, ‘একজন তো ৫৬ ইঞ্চির ছাতি নিয়ে যা দেখাচ্ছে, তা দেশের মানুষ দেখতেই পাচ্ছেন। গোটা দেশটাকেই বিক্রি করার পরিকল্পনা করে ফেলা হয়েছে।’ মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বলেন, ‘তিনি হিম্মত থাকলে বলে যান আমি একটাও ছবি বিক্রি করিনি। টাকা নিইনি। উনি বলতে পারবেন না। বাপরে বাপ! উনি কত বড় শিল্পী? যার ছবি কোটি টাকা, লক্ষ টাকায় বিক্রি হয়েছে। পৃথিবীতে এত বড় শিল্পী আছে বলে আমার জানা নেই। সেই ছবি কিনে একজন তো আগে থেকেই জেলে আছেন। তাঁর স্ত্রীও কদিন আগেই ধরা পড়ল।’ এদিনের সমাবেশ থেকে দলীয় কর্মীদের বিধানসভা নির্বাচনের জন্য কোমড় বেঁধে ময়দানে নামার আহ্বান জানান তিনি। বাম মনোভাবাপন্ন মানুষের কাছে আরও বেশি করে যেতে হবে বলেও কর্মীদের পরামর্শ দেন তিনি।