চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা শুভেন্দুর, রাজনৈতিক জল্পনা তুঙ্গে

138

উত্তরবঙ্গ সংবাদ নিউজ ডেস্ক: বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতেই কোমর বেধে নেমেছে সব রাজনৈতিক দল। দেওয়াল লিখন থেকে প্রার্থী নির্বাচন মোটামুটি ঘাসফুল থেকে গেরুয়া শিবির; সব দলের অন্দরে শুরু তৎপরতা। আর এরই মাঝে মঙ্গলবার জুট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যানের পদ থেকে হঠাৎই ইস্তফা দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। আর তাঁর এই পদত্যাগকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক জল্পনা তুঙ্গে।

তৃণমূলের সমস্ত পদ থেকে ইস্তফা দিয়েই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তারপরই শুভেন্দু অধিকারীকে ক্যাবিনেট মন্ত্রীর পদমর্যাদা দিয়ে, জুট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। সেই পদ থেকে এদিন ইস্তফা দিলেন শুভেন্দু। তবে কী কারণে তাঁর এই সিদ্ধান্ত, তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শায়ের ইচ্ছাতেই শুভেন্দু ওই পদ পেয়েছিলেন। জুট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদে থাকার দরুন এতদিন ক্যাবিনেট মন্ত্রীর মর্যাদা পাচ্ছিলেন শুভেন্দু। মেয়াদ ছিল ৩ বছর। কিন্তু ২ মাস পেরতে না পেরতেই সেই পদ ছাড়লেন বিজেপি নেতা।

- Advertisement -

উল্লেখ্য, গত ৪ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় বস্ত্র মন্ত্রকের প্রস্তাবিত এই নিয়োগ প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা হয়। তারপর শুভেন্দুর নিয়োগে সম্মতি দেয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন কমিটি। সেই পদ থেকে আচমকাই পদত্যাগ করেছেন শুভেন্দু। যদিও বিজেপির তরফে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র দাবি করেছেন, ‘নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ততা বাড়ছে। তাই শুভেন্দু ইস্তফা দিয়েছেন।’‌

জানা গিয়েছে, নিয়োগপত্র অনুযায়ী জুট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদে তাঁর ৩ বছরের মেয়াদ ছিল। তাঁকে ওই রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার অস্থায়ী চেয়ারম্যান হিসাবে নিয়োগ করা হয়। তবে সেই পদই এবার ইস্তফা দিলেন শুভেন্দু। বিজেপি সরকারিভাবে তাঁর প্রার্থী হওয়ার কথা ঘোষণা না করলেও, তিনি যে নিজের পুরনো কেন্দ্র থেকেই ভোটের ময়দানে অবতীর্ণ হতে চলেছেন, তা মোটামুটি নিশ্চিত। শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, নির্বাচনে লড়তে হলে সমস্ত সরকারি পদ থেকে ইস্তফা দিতে হয়।