করোনা আক্রান্তদের পরিবারের সদস্যদের লালার নমুনা সংগ্রহ শুরু

458

হরিশ্চন্দ্রপুর: হরিশ্চন্দ্রপুরের করোনা আক্রান্তদের পরিবারের সদস্যদের লালার নমুনা সংগ্রহ শুরু করল জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর। সূত্রের খবর, বুধবার প্রায় ৫০ জনের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, এখনও পর্যন্ত হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকায় ১১ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। মালদা জেলাতে এই সংখ্যাটা সর্বোচ্চ।

এই পরিসংখ্যানের নিরিখে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে এলাকাতেই ছয়জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। সূত্রের খবর, এই ছয়জনই গত সপ্তাহে আজমের শরিফ থেকে ফিরেছিলেন। তাঁদের লালার নমুনা মালদাতে সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু, নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার আগেই হোম কোয়ারান্টিনে থাকার শর্তে তাঁদের হরিশ্চন্দ্রপুরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়। কিন্তু, দু’দিন পর ছয়জনেরই করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপরেই তাঁদের পুরাতন মালদার কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হয়।

- Advertisement -

স্থানীয়দের অভিযোগ, করোনা আক্রান্তরা গত দু’দিন হোম কোয়ারান্টিনে থাকার নির্দেশ সহ সমস্ত প্রকার স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করেছেন। স্থানীয় বাসিন্দা বিমান ঝা’র অভিযোগ, গ্রামবাসীরা ঘরেফেরা পরিযায়ী শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে বারবার অনুরোধ করেন, কিন্তু কেউই তোয়াক্কা করেননি। এদিকে, একই এলাকায় ছয়জন করোনা আক্রান্তের খবর আসতেই এলাকায় আতঙ্ক ছড়ায়। এদিকে করোনা আক্রান্তদের হাসপাতলে স্থানান্তরিত করা হলেও আক্রান্তদের পরিবারের সদস্যরা গ্রামেই রয়ে গিয়েছে।

যদিও, হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লক স্বাস্থ্য অধিকর্তা অমলকৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, ‘মহেন্দ্রপুর এলাকার ছয় করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। অযথা অতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই।’