সরানো হলো তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়কে, প্রার্থীর নাম ঘোষণা হতেই দেওয়াল লিখন শুরু

128

আসানসোল: পশ্চিম বর্ধমান জেলায় আসানসোল মহকুমার তিনটি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী বদল করল তৃণমূল কংগ্রেস । তবে এবারের প্রার্থী তালিকায় বড় চমক অবশ্যই অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের নাম। আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রে সায়নী ঘোষকে এবার প্রার্থী করেছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রে বিধায়ক ছিলেন তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়। তাকে এবার রানিগঞ্জ কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে। এই রানিগঞ্জে গতবার শাসক দলের প্রার্থী হয়েও হেরে যান প্রাক্তন বিধায়ক সোহরাব আলির স্ত্রী নার্গিস বানু। এদিকে সায়নী ঘোষের নাম ঘোষণা হতেই দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে যায় আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা এলাকায়। তবে এদিন প্রথমেই দেওয়াল লিখনের কাজ শুরু হয় বেলিয়াবাথান এলাকায়। রং ও তুলি হাতে দলের প্রার্থী হিসেবে অভিনেত্রীর নাম লিখতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন তৃণমূল কর্মীরা।

আসানসোল দক্ষিণ কেন্দ্রের বিদায়ী বিধায়ক তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, গত ১০ বছর ধরে আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক রয়েছি। যখন প্রথম দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হই তখন জানতামই না এই কেন্দ্রটি কেমন। ডিলিমিটেশন হয়ে সেবার প্রথম এই কেন্দ্রটি তৈরি হয়। এই বিধান সভায় রয়েছে আসানসোলের একাংশ ও বার্নপুর শহর হয়ে রানিগঞ্জের গ্রামীণ এলাকা থেকে দামোদর নদী লাগোয়া সূর্যনগর হয়ে বক্তানগর।

- Advertisement -

তিনি আরও বলেন, রানিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রটি দক্ষিণপন্থী বিরোধী হলেও লড়াই খুব একটা কঠিন হবে না। তিনি সায়নী ঘোষকে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, প্রার্থী যখন প্রচারে বেরোবেন স্থানীয় বাসিন্দারা বিশেষ অভাব অভিযোগ করবেন না বলেই আমার আশা। পুরোনো কেন্দ্রে টিকিট না পাওয়া নিয়ে তাপসবাবুর দাবি, হতে পারে দলনেত্রী বেশি ভরসা করেছেন আমার উপর। তাই বামেদের দখলে থাকা রানিগঞ্জে টিকিট দেওয়া হল, যাতে আসনটি দলকে জিতিয়ে আনতে পারি। অন্যদিকে, বামেদের দখল থাকা জামুড়িয়ায় প্রার্থী করা হয়েছে তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসি সমর্থিত কেকেএসসির রাজ্য সভাপতি হরেরাম সিংকে। জামুড়িয়ার তপসিতে এদিন হরেরাম সিংয়ের নামে দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে যায় নাম ঘোষণা হতেই। জামুড়িয়ায় ২০১৬ সালে সিপিএমের জাহানারা খানের কাছে হেরে যান তৃনমুল কংগ্রেসের ভি শিবদাসন ওরফে দাসু।

পান্ডবেশ্বর বিধানসভায় প্রার্থী করা হয়েছে সেখানকার ব্লক সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীকে। এই কেন্দ্রের গতবারের বিধায়ক জিতেন্দ্র তেওয়ারি দিন কয়েক আগেই তৃনমুল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন।

এছাড়া আসানসোল উত্তর বিধান সভায় মন্ত্রী মলয় ঘটক, বারাবনিতে বিধান উপাধ্যায় ও কুলটিতে উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়কে এবারে আবার প্রার্থী করা হয়েছে। বিধানের নামে দেওয়াল লিখন আগে থেকেই করে রেখেছিলেন বারাবনির তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা। এদিন মলয় ঘটকের নাম ঘোষণা হতেই তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা বাজি ফাটান ও মিষ্টি বিলি করেন আসানসোল সিটি বাসস্ট্যাণ্ডে। কর্মীদের দাবি নাম ঘোষণা নয়, আসানসোল উত্তর বিধান সভায় মলয় ঘটক জিতে গেছেন। তাই আমরা বাজি ফাটাচ্ছি ও মিষ্টি বিলি করছি।