করোনা পরিস্থিতিতে বড় ধাক্কা চা শিল্পে, উৎপাদন কমল অনেকটাই

90

জলপাইগুড়ি: করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশের সেরা দুই চা উৎপাদক রাজ্য অসম এবং পশ্চিমবঙ্গে ২০১৯ সালের নিরীখে ৪৭ শতাংশ চা কম উৎপাদন হয়েছে। চা কম উৎপাদনের জেরে দেশের বৈদেশিক বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞ মহলের। টি বোর্ডের পরিসংখ্যান অনুসারে ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত চা উৎপাদন হয়েছিল ৭৮.৩৩ মিলিয়ন কেজি। এবারে এই চার মাসে চা উৎপাদন হয়েছে ৫১.৭৭ মিলিয়ন কেজি। অসমে ৩৪ শতাংশ চা কম উৎপাদন হয়েছে। চা কম উৎপাদিত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও। গত ২০১৯ সালে জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত ৪২.৪৮ মিলিয়ন কেজি চা উৎপন্ন হয়েছিল। ২০২১ সালে চা উৎপাদিত হয়েছে ৪৫.৫৬ মিলিয়ন কেজি। চা কম হওয়াতে চা শিল্পপতিরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

টি অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার সেক্রেটারি জেনারেল প্রবীর ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, চায়ের উৎপাদন কম হওয়াতে বাগান কর্তৃপক্ষকে তীব্র আর্থিক সংকটের মুখে পড়তে হবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন চা উৎপাদন বন্ধ ছিল।

- Advertisement -

সর্বভারতীয় ক্ষুদ্র চা চাষি সমিতির সভাপতি বিজয় গোপাল চক্রবর্তী জানান, ছোট চা বাগানগুলিও করোনা পরিস্থিতিতে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর্থিক সংকট কিভাবে তাঁরা মোকাবিলা করবেন, তা বুঝে উঠতে পারছেন না।