খাদ্য দপ্তরের ভূমিকায় ক্ষোভ, র‍্যাশন বোঝাই গাড়ি ফেরত পাঠালেন চা শ্রমিকরা

110

জলপাইগুড়ি: ১৫ বছর ধরে বন্ধ রায়পুর চা বাগান। বাগানের সমস্ত শ্রমিকেরই রীতিমতো বেহাল দশা। শ্রমিকদের অভিযোগ, তাঁরা সকলেই বিপিএল হলেও খাদ্য দপ্তর শ্রমিকদের এপিএল, বিপিএল দুইভাগে ভাগ করে র‌্যাশন পাঠিয়েছে। তাই বিক্ষোভ দেখিয়ে ছ’শোরও বেশি শ্রমিক রবিবার র‌্যাশনের গাড়ি অবরোধ করে বরাদ্দ র‌্যাশন ফেরত পাঠিয়ে দেন। পাতকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনস্থ এই রায়পুর চা বাগানটি।

গ্রাম প্রধান প্রধান হেমব্রম জানান, বাগানের শ্রমিক আবাস এবং জমি সবটাই মালিক পক্ষের। বর্তমানে কাঁচা চা পাতা বিক্রি করে শ্রমিকদের দৈনিক ৫০ টাকা মজুরি দেওয়া হচ্ছে। সমস্ত শ্রমিককেরই আর্থিক অবস্থা সঙ্গীন। খাদ্য দপ্তর কিভাবে শ্রমিকদের এপিএল, বিপিএল দুই ভাগে ভাগ করল তা তাঁদের বোধগম্য হচ্ছে না। বাগানে এদিন র‌্যাশনের গাড়ি ঢোকা মাত্র শ্রমিকরা তুমুল বিক্ষোভ দেখান। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত বিক্ষোভ চললেও শ্রমিকরা না মানায় র‌্যাশনের গাড়ি জলপাইগুড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

- Advertisement -

জেলা খাদ্য দপ্তরের নিযামক অমৃত ঘোষ জানান, আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হবে। অন্যদিকে বাগানের শ্রমিক সোনিয়া ভমিজ, বিতনা বরাইক, সুশান্ত বিশ্বাস, রাধা মুণ্ডা, জনি লোহারদের দাবি, করেন আগের মত তাঁদেরকে ২০ কেজি আটা এবং ১৫ কেজি চাল দেওয়া হোক।