অবাক কাণ্ড! ছাত্রছাত্রীদের ‘ভালো’ চেয়ে শ্রীঘরে শিক্ষক

119
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: লক্ষ্য ছিল ছাত্রছাত্রীদের মেধা কয়েকগুন বাড়িয়ে তোলা। সেক্ষেত্রে কোনও প্রকার কসুর রাখেননি পূর্ব দিল্লির মান্দাওয়ালির এক গৃহশিক্ষক। শুধু তাই নয় ছাত্রছাত্রীদের ভালো চেয়ে কখনও পারিশ্রমিক দাবি করতেন না তিনি। যদিও শেষ অবধি তার ঠাঁই হল শ্রীঘরে।

পূর্ব দিল্লির মান্দাওয়ালির ওই গৃহ শিক্ষকের নাম সন্দীপ। চলতি শিক্ষাবর্ষে বিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তিনি। জানা গিয়েছে, তিনি ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির পড়ুয়াদের পড়াতেন। কোনও প্রকার পারিশ্রমিক কখনও তিনি দাবি করতেন না। তবে, তার কাছে পড়তে যাওয়া প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীকেই ইনজেকশন নেওয়ার পরামর্শ দিতেন স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তোলার লক্ষ্যে। বিষয়টি শুরুতে গোপন থাকলেও তার পর্দা ফাঁস হতেই তদন্তে নামে পুলিশ। এরপরেই গ্রেপ্তার করা হয় ওই শিক্ষককে।

- Advertisement -

অভিযোগ, ছাত্রছাত্রীদের স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তোলার কথা বলে ওই শিক্ষক তার ছাত্রছাত্রীদের যে ইনজেকশন দিত তাতে নর্মাল স্যালাইন ভরা থাকত। বিষয়টি শুরুতে ধামাচাপা থাকলেও এক ছাত্রের বাবা তার নিজের সন্তানকে ইনজেকশন নিতে দেখে পুলিশকে জানান৷ এরপরেই পুলিশ তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তদন্তকারী অফিসারেরা জানতে পারেন নর্মাল স্যালাইন ভরে ছাত্রছাত্রীদের দিত ওই শিক্ষক৷ যা কিন সে ইউটিউব দেখে রপ্ত করেছিল।