ছোলা-সয়াবিনের বদলে পড়ুয়াদের ডিম দেওয়া হোক, দাবি শিক্ষকদের

104
ফাইল ছবি

মেখলিগঞ্জ: করোনা পরিস্থিতিতে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় প্রাথমিক ও উচ্চ প্রাথমিক পড়ুয়াদের রাজ্য সরকার মিড ডে মিলের সামগ্রী স্কুল থেকে বণ্টন করছে। গত মে মাসের ২৫ তারিখ রাজ্য সরকার একটি নির্দেশিকা বের করে তাতে যে পরিমাণ সামগ্রী দেওয়ার কথা তা কমিয়ে দেয়। পাশাপাশি মিড ডে মিলের সামগ্রী থেকে ছোলা বাদ দেওয়া হয়। এতেই ক্ষোভ প্রকাশ করে অনেক অভিভাবক ও স্কুল শিক্ষকরা। মঙ্গলবার মেখলিগঞ্জ দক্ষিণ চক্রের অবর বিদ্যালয় পরিদর্শককে অনলাইনে স্মারকলিপি দিল বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি।

সমিতির মেখলিগঞ্জ সাউথ সার্কেল কমিটির সম্পাদক অনিমেষ সাহা জানান, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে শিশুরাও আক্রান্ত হচ্ছেন। বিজ্ঞানী ও চিকিৎসকরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন করোনা তৃতীয় ঢেউ আসতে পারে। ফলে এই পরিস্থিতিতে পড়ুয়াদের পুষ্টির প্রয়োজন। বেশিরভাগ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পড়ুয়া দরিদ্র পরিবারের। কিন্তু রাজ্য সরকার প্রত্যেক মাসে আগে যে মিড ডে মিলের সামগ্রী দিত তার থেকে সোয়াবিন ২০০ গ্রাম থেকে কমিয়ে ১০০ গ্রাম করেছেন। দামও কম নির্ধারিত করেছেন। এরসঙ্গে চিনি ৫০০ গ্রামের পরিবর্তে ২৫০ গ্রাম বরাদ্দ করে। ছোলার মত উচ্চ প্রোটিন জাতীয় শস্য সম্পূর্ণ বাদ দেওয়া হয়েছে। এর প্রতিবাদ আমরা জানাই। আগের বরাদ্দ না কমিয়ে ডিমের মত পুষ্টিকর খাদ্য সামগ্রী দেওয়া হোক। মিড ডে মিল ওয়ার্কারদেরও পুষ্টিকর খাদ্য দেওয়া হোক। এই দাবিতেই আমরা করোনার স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখে অনলাইনে স্মারকলিপি দেই বিদ্যালয় পরিদর্শককে।

- Advertisement -

এই স্মারকলিপির সমর্থন জানিয়েছেন মেখলিগঞ্জের বাগডোকরা ফুলকাডাবরি অঞ্চলের নিমাই রায়, দীপক রায়, দীপঙ্কর রায় ও অশোক রায়ের মত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের অভিভাবকরা। নিমাই রায় জানান, করোনা পরিস্থিতিতে কাজ হারিয়েছি। বাচ্চাদের পুষ্টিকর খাবার দেওয়া কষ্টকর হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে স্কুল থেকে প্রত্যেক মাসে যা মিড ডে মিল সামগ্রী দিত তা অনেকটা কাজ লেগেছিল। কিন্তু স্কুল থেকে জানলাম আগের থেকে চিনি ও সোয়াবিন কমিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং ছোলা দেওয়া হবে না। মিড ডে মিলের সামগ্রী কমিয়ে দেওয়াটা একদমই ঠিক করেনি। বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির অনলাইনে স্মারকলিপি নিয়ে মেখলিগঞ্জ দক্ষিণ চক্রের স্কুল পরিদর্শক বরুন বিশ্বাস বলেন, ‘স্মারকলিপিটি পেয়েছি। আমরা মিড ডে মিলের উচ্চ সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের বিষয়টি জানাব।’