প্রতি বুথ থেকে দশ জনকে থাকতে নির্দেশ, ব্রিগেড নিয়ে ঝাঁপাচ্ছে বিজেপি

106

কলকাতা: আগামী ৭ মার্চ কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জনসভা করবেন। সেখানে রাজ্যের প্রতিটি বুথ থেকে দলের ১০ জন করে কার্য্যকর্তা উপস্থিত থাকবেন। বুধবার সকালে দক্ষিণ কলকাতার একটি হোটেলে বিজেপির মিডিয়া সেলের দপ্তরে আয়োজিত এক সাংবাদিক বৈঠকে ওই কথা বলেন দলের মুখ্য মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য।

শমীক জানান, আগামী ২ মার্চ থেকে ওই সভাকে কেন্দ্র করে রাজ্যজুড়ে তাদের কর্মী ও নেতারা যেমন বাইক মিছিল শুরু করবেন, তেমনি রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রতিটিতে ঘুরবে তাদের দলের একটি করে ডিজিটাল ভ্যান। সেই ভ্যানে উপস্থিত দলীয় নেতাকর্মীরা স্থানীয় মানুষের দাবি-দাওয়ার কথা শুনে তা লিপিবদ্ধ করবেন এবং প্রতিটি ভ্যানেই থাকবে একটি করে ড্রপবক্স। যেখানে প্রতিটি কেন্দ্রের বাসিন্দারা চাইলে লিপিবদ্ধ আকারে তাদের অভাব অভিযোগের কথা জানাতে পারবেন। শমিকের কথায়, ৭ মার্চ তাদের ওই জনসভার মূল উদ্দেশ্যই হবে এ রাজ্যে দুর্নীতিমুক্ত নিয়োগ ব্যবস্থা, প্রতিবছর টেট পরীক্ষার আয়োজন, সুষ্ঠু জমি নীতি প্রবর্তন করা, ফসল বীমা চালু ও আলু চাষিদের দুর্দশা দূর করা।

- Advertisement -

বিজেপি নেতা রাকেশ সিংয়ের গ্রেপ্তারের প্রসঙ্গে করা একটি প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে শাসক দলের নেতারা পুলিশকে দিয়ে তাদের দলকে বদনাম করার জন্য ওই কাণ্ডটি ঘটিয়েছে। যাকে গ্রেপ্তার করা নিয়ে ওই ঘটনার সূত্রপাত, তার গ্রেপ্তারের তিনদিন আগেই শাসক দলের নেতাদের সঙ্গে তার আলোচনার ছবি পাওয়া গিয়েছে। গ্রেপ্তারের পর দিন আটক মহিলাকে দিয়ে তাদের দলের নেতাদের নামে বিষোদগার করানো হয়েছে। তিনি প্রশ্ন তোলেন মাদকসহ গ্রেপ্তার বলে যে ঘটনার অভিযোগ করা হচ্ছে সেই ঘটনায় আটক ব্যক্তির কথা অনুসারেই পুলিশ গতকাল রাকেশ সিংয়ের বাড়ি এমন ভাবে ঘিরে তল্লাশি চালায় যেন সে একজন আন্তর্জাতিক পাচার চক্র বা জঙ্গীদের পাণ্ডা। এমনকি তার ছেলেদেরকেও পুলিশ নানান অজুহাতে গ্রেপ্তার করেছে।’

বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র সঙ্গে তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষের বৈঠক সংক্রান্ত একটি প্রশ্নের উত্তরে শমিক বাবু জানান, এবিষয়ে তাঁর পক্ষে কিছু বলা সম্ভব নয়। প্রয়োজনে শুভেন্দু অধিকারী, বাবুল সুপ্রিয় বা কুণাল ঘোষেরাই সে ব্যাপারে বলতে পারবেন।