লাইন কলিংয়ে প্রযুক্তির পক্ষে টেনিস তারকারা

মেলবোর্ন : তবে কি টেনিসের লাইন জাজদের বিদায় আসন্ন?

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রথম রাউন্ডে খেলার পর তারকাদের কথা শুনে অবশ্য সেটাই মনে হচ্ছে।

- Advertisement -

করোনাকালে ম্যাচ আয়োজনের সঙ্গে জড়িত মানুষের সংখ্যা কমানোর উপর জোর দেওয়া হচ্ছে। এমন অবস্থায মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ক্ষেত্রে লাইন জাজের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক লাইন কলিং ব্যবহার করা হয়েছে। আর লাইন কলিংয়ের ক্ষেত্রে মানুষের পরিবর্তে যন্ত্র ব্যবহারের পক্ষেই দাঁড়িয়েছেন তারকারা।

যেমন নাওমি ওসাকা। তিন গ্র্যান্ড স্লামের মালিক এই জাপানি তারকার কথায়, পরবর্তীতে যদি এভাবেই চলে, আমার কোনও সমস্যা নেই। প্রযুক্তি ব্যবহার করা হলে আমাদেরও লাইন জাজের সঙ্গে তর্ক করার প্রয়োজন হবে না। ফলে ম্যাচ দ্রুত শেষ হবে। প্রযুক্তি ব্যবহৃত হওয়ায় আমারও বারবার সিদ্ধান্ত নিয়ে চ্যালেঞ্জ করার প্রয়োজন হচ্ছে না।

অতীতে লাইন জাজের সঙ্গে সেরেনা উইলিয়ামসের বিবাদ খবরের শিরোনাম হয়েছে। এমনকি ইউএস ওপেনে একবার লাইন জাজের সঙ্গে সেরেনার ঝামেলা মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। এর আগে প্রযুক্তি ব্যবহারের বিপক্ষেই মত দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মেলবোর্নে প্রথম ম্যাচ খেলার পর বলছেন, আমি এখন প্রযুক্তির পক্ষেই মত দিচ্ছি। কারণ এতে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। আমার আগেই এই সিদ্ধান্তের পক্ষে যাওয়া উচিত ছিল।

গতবছর অনিচ্ছাকৃতভাবে এক লাইন জাজের গায়ে বল মারায় নোভাক জকোভিচকে ইউএস ওপেন থেকে বাদ দেওয়া হয়। তাঁর মতে, লাইন জাজরা টেনিসের ইতিহাস আর ঐতিহ্যের অংশ। কিন্তু সত্যি বলতে এখন আর ওদের প্রয়োজন নেই। আমি প্রযুক্তির পক্ষে।

এই প্রযুক্তিই টেনিসের ভবিষ্যৎ বলে মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের টুর্নামেন্ট ডিরেক্টর ক্রেগ টিলে। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, আমি আমার এক লাইন জাজ বন্ধুর সঙ্গে কথা বলছিলাম। ও জিজ্ঞাসা করল, আমাদের ভবিষ্যৎ কী হবে বলে তোমার মনে হয়। আমি বললাম, পেশাদার পর্যায়ে তোমাদের পেশার কোনও ভবিষ্যৎ নেই। তবে ছোট টুর্নামেন্টে এখনই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে না বলেই মনে করছেন তিনি।