বিজেপির চা চক্রে উত্তেজনা, দিলীপকে কটূক্তির অভিযোগ তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে

91

আসানসোল: বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষের চা চক্রকে কেন্দ্র করে বুধবার উত্তেজনা ছড়াল পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলের ইস্পাতনগরী বার্নপুরে। এদিন বার্নপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চা চক্রে দিলীপ ঘোষের সঙ্গে রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী তথা আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভার বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল সহ অন্যান্য বিজেপি জেলা নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। চা চক্র শেষ হতেই তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা সেখানে হাজির হন। দিলীপ ঘোষ যখন গাড়িতে করে এলাকা ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন তখন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা তাকে উদ্দেশ্য করে কটূক্তি করে বলে অভিযোগ। ‘খেলা হবে’ স্লোগান দিতে থাকেন। পালটা বিজেপির নেতা-কর্মীরাও ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দিতে শুরু করেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় হিরাপুর থানার পুলিশ। দিলীপ ঘোষের সঙ্গে থাকা কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা তাঁর গাড়ি বের করে নিয়ে চলে যায়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বিষয়টি নিয়ে সরব হন অগ্নিমিত্রা পাল। তিনি ক্ষোভের সঙ্গে জানান, তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী মানে তো ‘গুণ্ডা’। দলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি এসেছিলেন চা চক্রে। তখন তাঁরা বিক্ষোভ দেখান। এটা কি ধরনের রাজনীতি।

তৃণমূল কর্মীদের দাবি, ত্রিপুরায় পুরভোটের প্রচারে যাওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ও কর্মীদের ওপর হামলা করছে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তার নিন্দায় এদিন প্রতিবাদ করা হয়েছে। অন্যদিকে, রানিগঞ্জের বিধায়ক তাপস বন্দোপাধ্যায় জানান, ‘খেলা হবে’ স্লোগান খারাপ কেন? সারা দেশে’তো এই স্লোগান জনপ্রিয় হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও তো এই স্লোগান দিয়েছেন।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, আসানসোলের পোলোগ্রাউন্ডে এদিন দিলীপ ঘোষ যোগাভ্যাসের পাশাপাশি দলের নেতা ও কর্মীদের নিয়ে মর্নিং ওয়াক করেন। এরপর আসেন বার্নপুর বাসস্ট্যান্ডে।