রায়গঞ্জ মেডিকেলে সদ্যজাতর মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা

155

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক সদ্যজাতর মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, সময়মতো চিকিৎসক না আসায় শিশুর কোনও চিকিৎসা হয়নি। বিনা চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসা পেলে শিশুটিকে বাঁচানো যেত। এদিন মৃতের পরিবারের পাশাপাশি অন্য রোগীর আত্মীয়রাও শিশু বিভাগে চরম অব্যবস্থার অভিযোগে সরব হন। ঘটনার জেরে রীতিমতো উত্তেজনা ছড়ায় মেডিকেল কলেজ চত্বরে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ভাটোলের গোপালপুরের বাসিন্দা এক গৃহবধূ দুদিন আগে রায়গঞ্জের একটি নার্সিংহোমে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। জন্মের পর শারীরিক সমস্যা থাকায় মঙ্গলবার রাতে শিশুটিকে নার্সিংহোম থেকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। শিশু বিভাগে ভর্তি করা হলে এদিন ভোরে শিশুটির মৃত্যু হয়। চিকিৎসক না থাকায় মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন সদ্যজাতর আত্মীয়রা।

- Advertisement -

শিশুর আত্মীয় আব্দুল মালেক জানান, রাত থেকে এদিন অনেক বেলা পর্যন্ত কোনও চিকিৎসক আসেননি ওয়ার্ডে। চিকিৎসা না পেয়ে ওয়ার্ডেই পড়ে থাকে শিশুটি। শেষ পর্যন্ত মৃত্যু হয় তার। মৃতের আরেক আত্মীয় নুর মহম্মদ জানান, সময়মতো চিকিৎসক এলে শিশুটিকে বাঁচানো যেত। এই বিষয়ে বুধবার আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ জানাতে গেলে বাধা দেওয়া হয়।

যদিও মৃতের পরিবারের অভিযোগ মানতে নারাজ মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ। রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের সহকারি সুপারিন্টেন্ডেন্ট অভীক মাইতি বলেন, ’শিশুটিকে বাঁচানোর সবরকম চেষ্টা করেছেন চিকিৎসক। এখনও আমার কাছে কেউ অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।‘