সীমান্তের সার্করোড দখলমুক্ত করতে ময়দানে নামছে প্রশাসন

152

চ্যাংরাবান্ধা: সীমান্তের ব্যস্ততম সার্করোডের দুপাশ থেকে সরকারি জায়গা দখলমুক্ত করতে কড়া পদক্ষেপ করছে প্রশাসন। কোচবিহার জেলার চ্যাংরাবান্ধা বাইপাস থেকে চেকপোস্ট অবধি বাংলাদেশ গামী এই সার্করোডের দুপাশের ফুটপাথ দখল করে যাঁরা রয়েছেন ইতিমধ্যেই তাঁদের সরে যেতে বলা হয়েছে। এই রাস্তাটি ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। কারণ গত কয়েক বছরে এই রাস্তার উপর পথ দুর্ঘটনায় একাধিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। যার কারণে এই রাস্তাটিকেও আদর্শ রাস্তা হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন।

চ্যাংরাবান্ধা সীমান্তের এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রচুর পণ্য বোঝাই ট্রাকও বাংলাদেশে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকেও পণ্য নিয়ে ট্রাক আসছে। তাই আন্তর্জাতিক দিক দিয়েও এই রাস্তার যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। অভিযোগ, মাঝেমধ্যেই এই সার্করোডের উপর বেআইনিভাবে যানবহন দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। বিশেষ করে পণ্যবাহী ট্রাকের ভিড় চোখে পড়ে। এই রাস্তার পুরো অংশ এবার সর্বদা দখলমুক্ত করতে ময়দানে নামছে প্রশাসন।

- Advertisement -

প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, এই রাস্তাটিকে সর্বদা দখলমুক্ত রাখা হবে। দুর্ঘটনা এড়াতে জেব্রা ক্রসিং সহ আধুনিক ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা করা হবে। রাস্তার দুধারে বিভিন্ন স্থানে একাধিক সাইনবোর্ড লাগানো হবে। যার মাধ্যমে সতর্কবার্তা এবং সচেতনবার্তা পৌঁছে দেওয়া হবে। থাকবে ট্রাফিক সংক্রান্ত বিভিন্ন সাংকেতিক চিহ্নও।

মেখলিগঞ্জের মহকুমা শাসক রাম কুমার তামাং জানিয়েছেন, মেখলিগঞ্জ মহকুমার মধ্যে চ্যাংরাবান্ধা সীমান্তের সার্করোডটিকে আদর্শ রাস্তা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। রাস্তাটি নিয়মিত যানজট মুক্ত রাখার পাশাপাশি রাস্তার দুপাশে থাকা ফুটপাথও দখলমুক্ত করতে বলা হয়েছে। দ্রুত আদর্শ রাস্তার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা করা হবে প্রশাসনের তরফে।