দেড় হাজার রোহিঙ্গাকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পাঠালো বাংলাদেশ সরকার

288
প্রতীকী ছবি

বাংলাদেশ: সাতটি ছোট জাহাজে চাপিয়ে শুক্রবার প্রথম দফায় মোট ১৬৪২ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে বঙ্গোপসাগরের একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পাঠিয়ে দিল বাংলাদেশ সরকার। ভাসান চর নামে ওই দ্বীপ মাত্র কুড়ি বছর আগে ভেসে উঠেছিল। বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৩৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই দ্বীপটিতে প্রায় ১১২ মিলিয়ন ডলার খরচ করে ১ লক্ষ মানুষদের জন্য বাড়ি, হাসপাতাল, মসজিদ এবং বাঁধ তৈরি করেছে বাংলাদেশের নৌবাহিনী৷

তবে, এর আগে সেখানে জনবসতি গড়ে না ওঠায় আপত্তি জানিয়েছিলেন মানবাধিকার সংগঠনগুলি। আপত্তির তোয়াক্কা না করেই রোহিঙ্গাদের সেই দ্বীপে পাঠায় বাংলাদেশের সরকার। জাহাজে যাত্রার সময় খাওয়ার দেওয়ার পাশাপাশি প্রত্যেকের শরীরের তাপমাত্রা মাপা সঙ্গে তাদের ফেস মাস্কও দেওয়া হয়৷

- Advertisement -

অন্যদিকে, বাংলাদেশের মানবাধিকার সংগঠনগুলির পাশাপাশি রাষ্ট্রপুঞ্জের পরামর্শকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মায়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ সরকার ওই দ্বীপে পাঠায়। বাংলাদেশ সরকারের দাবি, ওই দ্বীপে সব রোহিঙ্গা শরণার্থীই সুরক্ষিত থাকবেন৷ রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিরা সেখানে গেলে এ বিষয়ে নিশ্চিতও হবেন৷ তবে কবে রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিদের ওই দ্বীপ পরিদর্শনে নিয়ে যাওয়া হবে তা স্পষ্ট করা হয়নি৷