তৃণমূল কর্মীর উপরে বোমা-গুলি ছোড়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

154

আসানসোল: সরস্বতী পুজোর বিসর্জন করে বাড়ি ফেরার সময় আক্রান্ত হলেন তৃণমূল কংগ্রেসের এক কর্মী। অভিযোগ ৩ দুষ্কৃতী বোমা ও গুলি নিয়ে হামলা করে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সনোজ সিংহের উপরে। ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার রাতে আসানসোলের বারাবনি বিধানসভার বারাবনি থানার গৌরান্ডির পানুড়িয়া দুর্গামন্দির সংলগ্ন এলাকায়। এই ঘটনায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমের আঘাতে জখম হওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সনোজের বাম পায়ের কিছুটা অংশ উড়ে যায়। দুষ্কৃতীদের একটি গুলিও ঐ তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর বাম কাঁধে লাগে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাকে সেখান থেকে দুর্গাপুরের এক বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

বারাবনির বিধায়ক বিধান উপাধ্যায় এই ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘শান্ত বারাবনিকে বারবার বিজেপি ভোটের আগে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। মানুষ এর যোগ্য জবাব সময় মতো দেবেন। আমরা চাই পুলিশ তদন্ত করে দোষীদের গ্রেপ্তার করুক।’

- Advertisement -

অন্যদিকে বিজেপির জেলা যুব মোর্চার সভাপতি তথা বারাবনির নেতা অরিজিৎ রায় বলেন, রাতের ঐ ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোন সম্পর্ক নেই। ওটা ওদের পুজোকে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে গন্ডগোল হয়। কিন্তু বিজেপির কর্মী ও নেতাদের ভোট ঘোষণার আগেই গুলি বোমা কাণ্ডে নাম জড়িয়ে তাদের জেলে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে তৃণমূল কংগ্রেস। মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। আর পুলিশ ওদেরকে সবরকমভাবে সহযোগিতা করছে।

আহত তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সনোজ সিংয়ের অভিযোগ,  দুষ্কৃতীরা প্রত্যেকেই বিজেপির কর্মী। তাদের নাম হলে বাবলু সিং, মুন্না তেওয়ারি, ও দীপক সিং। ঘটনার পরে আহত সনোজ সিংকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসেন তৃণমূল নেতা ও পানুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান বিশ্বজিৎ সিংহ ও ইন্দ্রজিৎ সিং সহ ও বেশ কিছু স্থানীয়রা। তৃণমূল নেতা বিশ্বজিৎ সিং অভিযোগ করে বলেন, ‘বিজেপি নেতৃত্ব এই রকমভাবেই শান্ত বারাবনিকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। ভবিষ্যতে এর ফল ভালো হবে না।’

বারাবনি থানার পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অভিযোগ হয়েছে। তদন্ত শুরু করা হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।