মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ ফ্লেক্সে পানের পিক, পরিষ্কার করলেন বিজেপি নেতা

342

শিলিগুড়ি: বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা ঘটেই চলেছে সর্বত্র। এমতবস্থায় শিলিগুড়ি শহরের উপকন্ঠে ঘটে গেল এক বেনজির ঘটনা। দেখা গেল শাসকদলের নেতাদের তরফে লাগানো তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সহ একটি ফ্লেক্স জুড়ে পানের পিক। প্রকাশ্য রাস্তায় দাঁড়িয়ে তা পরিষ্কার করছেন বিজেপির আইনজীবী সেলের নেতা অখিল বিশ্বাস। শিলিগুড়ি বিজেপি জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন। শিলিগুড়িতে মুখ্যমন্ত্রীর সফরকালে এই ঘটনায় রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে ইতিমধ্যে। অন্যদিকে ওই বিজেপি নেতার এহেন কর্মকান্ডকে কুর্নিশ জানিয়েছেন অনেকেই। পাশাপাশি, এই ঘটনায় জোর জল্পনা ছড়িয়েছে যে, ওই বিজেপি নেতা ঘাসফুল শিবিরে যোগ দিতে পারেন। যদিও তা একবাক্যে অস্বীকার করেছেন অখিলবাবু।

ঘটনাটি শিলিগুড়ি শহরের কোর্টমোড় এলাকার। জানা গিয়েছে, ঘটনাস্থলের অদূরে বাঘাযতীন পার্ক ময়দানে উত্তরবঙ্গ উৎসবের উদ্বোধন হয়। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতেই শিলিগুড়িতে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী। অভিযোগ, এদিন দুপুর নাগাদ দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রীর ছবিতে পানের পিক ছিটিয়েছেন কেউ। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের নজর এড়ালেও বিষয়টি দেখতে পান অখিলবাবু। এরপর নিজেই উদ্যোগী হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি পরিষ্কার করেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায়, অখিলবাবু উদ্যোগী হয়ে এখ টোটো চালকের থেকে জলের জার জোগার করেন। জোগার করেন কাপড়। এরপর নিজে হাতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি পরিষ্কার করেন।

- Advertisement -

অখিলবাবুর কথায়, উনি আগে আমাদের মুখ্যমন্ত্রী। পরে কোনও রাজনৈতিক দলের নেত্রী। আমার নজরে এসেছিল বিষয়টি। খারাপ লাগে। তাই পরিষ্কার করেছি।

দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রঞ্জন সরকার বলেন, ‘বিজেপি নেতা হিসেবে নয়, বন্ধু হিসেবে চিনি অখিল বিশ্বাসকে। তাঁর এই কাজে আমি খুশি। আমার মনে হয় কেউ ভুল করে ওই কাজ করেছিল। সেক্ষেত্রে, আমজনতাকেও সজাগ থাকতে হবে এসব বিষয়ে। ’