দুষ্কৃতী হামলার হাত থেকে বাঁচলেন বিজেপি নেতা, কাঠগড়ায় তৃণমূল

133

রামপুরহাট: অল্পের জন্য দুষ্কৃতী হামলার হাত থেকে বাঁচলেন বীরভূমের বিজেপি নেতা মানস বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁকে ঘিরে ধরে হামলা চালানোর চেষ্টা করে। কোনও রকমে পালিয়ে প্রাণে বাঁচেন তিনি। পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। সোমবার দুপুরে রামপুরহাট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

বিজেপির বীরভূম জেলা কমিটির সদস্য মানস বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি মল্লারপুরে। রবিবার রাতে তিনি দলীয় কর্মসূচি সেরে বাড়ি ফিরছিলেন। সে সময় কিছু দুষ্কৃতী তাঁকে ঘিরে ধরে বলে অভিযোগ। প্রাণ বাঁচাতে তিনি ছুটে একটি ধাবাতে আশ্রয় নেন। মানসবাবু বলেন, ‘আমি রামপুরহাটে দলীয় কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিলাম। সে সময় জাতীয় সড়কের উপর মাঝখণ্ড থেকে তারাপীঠ রোড ষ্টেশনের মধ্যে দুষ্কৃতীরা আমাকে ঘিরে ধরে।

- Advertisement -

তাঁরা অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে প্রাণে মেরে ফেলতে উদ্যত হয়। বিপদ বুঝে আমি গাড়ি ফেলে ছুটে একটি হোটেলে আশ্রয় নিই। এরপর পুলিশকে খবর দিই। পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে বাড়ি পৌঁছে দেয়। আমার বিশ্বাস দুষ্কৃতীরা তৃণমূল আশ্রিত। রাজনৈতিক কারণে মেরে ফেলার জন্য আমাকে ঘিরেছিল।‘ যদিও এবিষয়ে তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব ভট্টাচার্য বলেন, ‘অভিযোগ ঠিক নয়। তাছাড়া উনি এমন কোনও বড় নেতা নন যে তৃণমূল তাঁকে মারতে যাবে। এমনও হতে পারে ওদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল। কিংবা প্রচার পাওয়ার জন্য এসব নাটক করছেন।’