ধানক্ষেত থেকে বৃদ্ধের দেহ উদ্ধার

430

সামসী: ধানক্ষেত থেকে এক বৃদ্ধের দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চাঁচল-২ ব্লকের মালতীপুর-২ জিপির হরিশপাড়ায়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃত প্রৌঢ়ের নাম গৌরাঙ্গ দাস (৫৫)। বুধবার সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, মালতীপুর জিপির গোবিন্দপাড়া লাগোয়া আলাদিপুর গ্রামের বাসিন্দা গৌরাঙ্গ দাস একজন প্রান্তিক চাষি।গৌরাঙ্গ বাবুর ২ মেয়ে রয়েছে। বড়ো মেয়ে শারীরিক প্রতিবন্ধী।

- Advertisement -

মৃত গৌরাঙ্গ দাসের ছোটো মেয়ে গীতা দাস জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বের হন তিনি। সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়িতে না আসায় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। তাঁকে খুঁজে পেতে সামাজিক মাধ্যমেও গৌরবাবুর ছবি পোস্ট করা হয়। রাত অবধি খুঁজে না পেয়ে চিন্তায় ছিলেন পরিবারের লোকজন।

বুধবার আলাদিপুরের পাশের গ্রাম হরিশপাড়ার এক কৃষক মাঠে জমি চাষ করার জন্য গেলে মাঠে ধানক্ষেতে জলের মধ্যে এক ব্যক্তির মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। বিষয়টি মুহূর্তের মধ্যে জানাজানি হতেই আশপাশের প্রচুর লোক জমায়েত হয়। গ্রামবাসীরা গৌরাঙ্গ দাসের মৃতদেহ সহজেই চিনতে পেরে তাঁর বাড়িতে খবর দেয়। বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে এসে গৌরাঙ্গ দাসের এমন পরিণতি দেখে পরিবারের লোকজন কান্নায় ভেঙে পড়েন।

খবর দেওয়া হয় চাঁচল থানাতেও। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি। মৃত গৌর দাসের স্ত্রী ইতি দাস বলেন, গতরাতে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় কিছুই বলে যাননি। তবে তাঁর স্বামীকে কেউ শ্বাসরোধ করে খুন করে থাকতে পারে। তদন্ত সাপেক্ষে মৃত্যুর আসল রহস্য উন্মোচনের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

গৌরাঙ্গ দাসের দাদা বিভশু দাস ভাইয়ের দেহ দেখেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে তিনি বলেন, এলাকায় খুব ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিল ভাই। অল্প জমিতে চাষবাস করে সুখেই ছিল। তাঁর কাছে কেউ টাকা পয়সাও পেত বলে জানা নেই। কারও সঙ্গে তেমন কোনও ঝগড়া বিবাদও ছিলনা। কিন্তু এভাবে মারা যাবে ভাবাই যাচ্ছে না।

চাঁচল মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সজলকান্তি বিশ্বাস এ ব্যাপারে বলেন, বুধবার সকালবেলা মালতীপুর হরিশপাড়ার ধানক্ষেতে জলের মধ্যে থেকে এক প্রৌঢ়ের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। তবে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যায়নি।ময়নাতদন্তের পরেই মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে। আপাতত অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।