জন্ম ভিটেয় পৌঁছোলো শহিদের কফিন বন্দি দেহ, শোকস্তব্ধ গ্রাম

105

ধূপগুড়ি: ভোটের মুখে যখন সর্বত্র রাজনৈতিক ভেদাভেদ তৈরি হয়েছিল, ঠিক তখনই সব ভেদাভেদ ভুলিয়ে দিল শহিদ জগন্নাথ রায়। বুধবার সাধারণ মানুষের ভিড় ও জাতীয় পতাকা উড়িয়ে বাইক র‍্যালির মধ্যে দিয়ে বাড়িতে পৌঁছোয় শহিদের কফিন বন্দি দেহ সহ সিআরপিএফের কনভয়। এদিন দুপুরে কনভয় পৌঁছোনোর পর প্রথমে কফিন বন্দি দেহ নিয়ে যাওয়া হয় বাড়িতে। বাড়ির অদূরেই তৈরি করা হয়েছিল শহিদকে শ্রদ্ধা জানানোর স্থান। সেখানে মা, স্ত্রী ও আত্মীয়দের সামনে কফিন খুলতেই সকলে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এখানেই শেষ নয়, শহিদকে শেষ দেখা দেখতে গ্রামের বাইরে এমনকি পাশের ব্লক থেকেও প্রচুর মানুষ ভিড় জমিয়ে ছিল।

শহিদকে প্রথমে রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী শ্রদ্ধা জানায়, পরে সিআরপিএফ বাহিনীও পৃথকভাবে শ্রদ্ধা জানায়। ঘটনাস্থলে সিআরপিএফের শিলিগুড়ি রেঞ্জ ডিআইজি সহ উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া জলপাইগুড়ি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গ্রামীণ) ওয়াংদেন ভুটিয়া, ধূপগুড়ির বিদায়ী বিধায়ক মিতালি রায়, জলপাইগুড়ির সাংসদ জয়ন্ত রায় ছিলেন।

- Advertisement -

সিআরপিএফের শিলিগুড়ি রেঞ্জ ডিআইজি প্রবঞ্জন কুমার বলেন, ‘জঙ্গি হানায় ঘটনাস্থলেই দুজন শহিদ হয় এবং জগন্নাথ রায় আহত হয়। তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে শহিদ হয়। এদিন তাঁর শেষ যাত্রা সম্পন্ন হয়েছে।’